অক্ষয় কুমারের ছবি ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’-এ করা হল এই ৫ টি বড় পরিবর্তন,তারপরই মিলল CBFC এর মঞ্জুরি

দর্শকদের দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান হতে চলেছে, কারণ খুব শীঘ্রই মুক্তি পাচ্ছে অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’ ছবিটি। ছবিতে প্রধান ভূমিকায় দেখা যাবে অক্ষয় কুমার এবং মানুষী চিল্লরকে দেখা যাবে । পরাক্রমশালী সম্রাট পৃথ্বীরাজ চৌহানের জীবনী নিয়ে তৈরী এই পিরিয়ড ড্রামাটি হতে চলেছে আগামীদিনের সেরা চমক। ডক্টর চন্দ্রপ্রকাশ দ্বিবেদী পরিচালিত এই ছবিকে ঘিরে দর্শকদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা রয়েছে।

মিডিয়া রিপোর্ট অনুসারে, ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’ছবিটি সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন (CBFC) ২০২২ সালের জানুয়ারিতেই পেয়েছিলেন। কারণ ছবিটির নির্মাণকাজ ২০২১ সালেই শেষ হয়েছিল এবং এবছরের ২১ জানুয়ারি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কোভিড -১৯ এর তৃতীয় তরঙ্গের পরবর্তী পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এই ছবির মুক্তি স্থগিত করা হয়েছিল। সেইথেকে দীর্ঘ চার মাস পর ছবিটি মুক্তির জন্য প্রস্তুত হয়েছে এবং আগামী ৩রা জুন ছবিটি পেক্ষাগৃহে রিলিজ হচ্ছে।

অক্ষয় কুমারের ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’ CBFC থেকে U/A সার্টিফিকেট পেয়েছে গিয়েছে। তবে তার জন্য ছবিতে পাঁচটি পরিবর্তন করতে হয়েছে নির্মাতাদের। সেন্সর কমিটি একটি দাবি রেখেছিল যেখানে তারা ছবির মাধ্যমে ‘সতীদাহ’ ও ‘জোওহর’ জাতীয় প্রথার প্রচার করতে নিষেধ করেছিলেন। এছাড়া নির্মাতাদের এই ছবির চারটি সংলাপ পরিবর্তন করতে হয়েছিল সেন্সর শংসাপত্র পাওয়ার জন্য। রিপোর্ট অনুসারে, CBFC-এর পরীক্ষা কমিটির নির্দেশ অনুযায়ী “হারান” শব্দটিকে “ওয়ারান” দিয়ে প্রতিস্থাপন করা হয়েছিল “নানা” শব্দটিকে “ঋষি” দিয়ে প্রতিস্থাপন করতে হয়েছিল। “কাবজা” শব্দটিকে “হামলা” এবং “অন্তিম ” শব্দটি মুছে ফেলে “মহান” শব্দটির ব্যাবহার করা হয়েছিল। শংসাপত্রে এই ছবির সময়কাল ১৩৫.৩৯ মিনিট হিসাবে রেকর্ড করা হয়েছে। অর্থাৎ ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’ ২ ঘন্টা ১৫ মিনিট ৩৯ সেকেন্ড দীর্ঘ হতে চলেছে।

অন্যদিকে রাজপুত কর্নি সেনাদের সাথেও বিতর্কে জড়িয়ে ছিলেন পৃথ্বীরাজ ছবির নির্মাতারা। কারণ কর্ণি সেনাদের কাছে ‘পৃথ্বীরাজ’ নাম অসম্মানজনক বলে মনে হয়েছিল। তাই তারা ছবির নাম পরিবর্তন করে সম্রাট পৃথ্বীরাজ করতে বলেছিলেন। এমনকি তারা ছবির মুক্তি আটকে দোবারও হুমকি দিয়েছিলেন। এরপর একপ্রকার চাপে পড়েই ছবির নাম ‘পৃথ্বীরাজ’ থেকে ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’ করেছেন নির্মাতারা। কিন্তু মজার বিষয়, সেন্সর সার্টিফিকেটে ছবির নাম ‘পৃথ্বীরাজই’ রয়ে গিয়েছে। অবশ্য এক চলচ্চিত্র বিশেষজ্ঞ বলেছেন এর জন্য নতুন নামের সাথে মুক্তি দিতে বিশেষ কোনো অসুবিধা হবে না।

Related Articles

Back to top button