উড়বে Google-Apple-র ঘুম! দেশি অপারেটিং সিস্টেম তৈরি করে তাক লাগালেন IIT পড়ুয়ারা

‘আত্মনির্ভর ভারত’ তৈরি করার লক্ষ্যে প্রতিনিয়ত নানারকম পদ্ধতি প্রয়োগ জারী রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (narendra modi) এই স্বপ্নকে আরও একধাপ এগিয়ে দিল আইআইটি পড়ুয়ারা। তৈরি করল দেশি অপারেটিং সিস্টেম। যে কাজে পড়ুয়াদের সাহায্য করেছে JandK অপারেশনস প্রাইভেট লিমিটেড নামক একটি সংস্থা।

জানিয়ে রাখি, ডেভেলপাররা এই অপারেটিং সিস্টেমের নাম দিয়েছেন ‘BharOS’। দেশের ১০০ কোটি মোবাইল ইউজাররা ব্যবহার করতে পারেন এই অপারেটিং সিস্টেম। মূলত আইআইটি মাদ্রাসের পড়ুয়ারা IIT Madras দ্বারা পরিচালিত একটি ফার্ম মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম তৈরি করে ফেলেছে। তবে এই কাজে তাঁদের সাহাস্য করেছে JandK অপারেশনস প্রাইভেট লিমিটেড নামক একটি সংস্থা।

img 20230125 152552

এবার জেনে নিন, এই BharOS অপারেটিং সিস্টেমের এমন ৫ টি তথ্য, যা ঘুম উড়িয়ে দেবে Google-Apple-র।

BharOS অ্যাপেও ‘নেটিভ ওভার দ্য এয়ার’ বা NOTA আপডেট পেয়ে যাবেন ব্যবহারকারীরা। তবে এক্ষেত্রে গ্রাহকের ফোনে অটোমেটিক্যালি ডাউনলোড এবং ইনস্টল হয়ে যাবে।

এই অপারেটিং সিস্টেমটি বিভিন্ন সংস্থার নির্দিষ্ট প্রাইভেট অ্যাপ স্টোর সার্ভিসেস (PASS) থেকে বিশ্বস্ত অ্যাপগুলির অ্যাক্সেস নিতে দেবে।

দেশে তৈরি, দেশবাসীর জন্য তৈরি প্রথম অপারেটিং সিস্টেম ভারওএস বা BharOS সম্পর্কে ডেভেলপাররা জানিয়েছেন, অপারেটিং সিস্টেমের সাহায্যে ব্যবহারকারীরা আরও বেশি করে স্বাধীনতা, নিয়ন্ত্রণ এবং ফ্লেক্সিবিলিট পাবে। এখানেই শেষ নয়, এই সিস্টেম মোবাইল ব্যবহারকারীদের ডিভাইসের সুরক্ষা এবং সোপনীয়তা সম্পর্কেও এক বিশেষ বিপ্লব ঘটাবে।

এক্ষেত্রে অ্যান্ড্রয়েডের থেকেও অনেকটাই বেশি স্টোরেজ স্পেস পাবেন ব্যবহারকারীরা। অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি গুগল অ্যাপ এবং বিভিন্ন নেটিভ অ্যাপ বাই-ডিফল্ট দিয়ে রাখে ফোনে। তবে এক্ষেত্রে BharOS কোনও অ্যাপ ব্যবহার করতে গ্রাহকদের বাধ্য করবে না।

প্রাইভেসি এবং সিকিওরিটির চাহিদা যাদের সবথেকে বেশি থাকে, বর্তমানে সেই সব অর্গ্যানাইজ়েশন এই মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমটি ব্যবহার করতে পারবেন। এখনই সকলে এই দেশি অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করার সুবিধা পাবেন না।

Related Articles

Back to top button