মাত্র ২৫ হাজার টাকা দিয়ে আজই শুরু করুন এই ব্যবসা! মাস গেলে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা পড়বে লাখ লাখ টাকা

চিঁড়ের ব্যবসা থেকে করা সম্ভব লাখ লাখ টাকা আয়

আজকাল জেনারেশনের মানুষদের মধ্যে লক্ষ্য করা যাচ্ছে তারা সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত হওয়া চাকরির থেকে ব্যবসার (business) প্রতি মানুষের ক্রেজ বৃদ্ধি পেতে দেখা যাচ্ছে। আর স্ট্যাটিসটিকে লক্ষ্য করা হয়েছে নতুন নতুন ব্যবসা (business)শুরু করে মানুষ বেশ সফলতাও অর্জন করেছে। আপনিও যদি নিজের নতুন স্টার্টআপ শুরু করার কথা ভাবছেন তবে এই আর্টিকেলটি শুধু আপনার জন্যই তৈরি হয়েছে। আজ আমরা এই আর্টিকেলে এমন এক বিজনেস আইডিয়া (business idea) শেয়ার করতে চলেছি যা করলে আপনি কিছুমাসের মধ্যেই হয়ে উঠবেন লাখ লাখ টাকার মালিক। আসুন জেনেনি বিজনেস আইডিয়াটি (business idea)।

এই ব্যবসাটি শুরু করতে আপনাকে বেশি টাকা বিনিয়োগ করার প্রয়োজন পরবে না। অর্থাৎ খুব অল্প পরিমান অর্থ বিনিয়োগ যথেষ্ট হবে। এর জন্য বাজারে বাজারে ঘোরার প্রয়োজন নেই। আসলে এই ব্যবসাটি আমাদের সকলের ব্রেকফাস্টের সঙ্গে সম্পর্কিত একটি ব্যবসা। সকালের ব্রেকফাস্টে অনেকেই চিঁড়ে খেতে পছন্দ করে। এই চিঁড়ের ব্যবসা করেই খুব সহজে ভাল টাকা উপার্জন করা সম্ভব। গত ২/৩ বছর ধরে স্বাস্থ্য সম্পর্কে বেশি করে সচেতন হয়েছেন। আর তাই মানুষ পুষ্টিকর খাদ্য খাওয়া বেশি পছন্দ করে। আর চিঁড়ে (Chiwda) হলো একটি দুর্দান্ত পুষ্টিকর বিকল্প। তাই চিঁড়ের চাহিদা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। এই কারণে চিঁড়ে (Chiwda)তৈরি করার ইউনিট লাগিয়ে ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে।

Chiwda

খাদি অ্যান্ড ভিলেজ ইন্ডাস্ট্রিজ কমিশনের (KVIC) একটি প্রজেক্ট রিপোর্ট অনুসারে চিঁড়ে ম্যানুফ্যাকচার ইউনিট লাগানোর জন্য প্রায় ২.৪৩ লাখ টাকা খরচ হয়। এর ৯০% লোন পাওয়া যায়। অর্থাৎ কেউ যদি এই ব্যবসা শুরু করতে চান, তাহলে তাঁকে শুধু ২৫ হাজার টাকা জোগাড় করতে হবে। এই ব্যবসা শুরু করার জন্য প্রায় ৫০০ বর্গফুট জায়গার প্রয়োজন হয়। একটি চিঁড়ে মেশিন, ভাটি, প্যাকিং মেশিন এবং ড্রাম সহ ছোট ছোট কয়েকটি জিনিসের প্রয়োজন হয়। KVIC-এর রিপোর্ট অনুসারে এই ব্যবসা অল্প কাঁচামাল দিয়েই শুরু করা যায়। বিক্রি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কাঁচামালের পরিমাণ বাড়ানো যেতে পারে। এভাবে ধীরে ধীরে এই ব্যবসা থেকে মুনাফা লাভ করা সম্ভব।

money

এই ব্যবসার ক্ষেত্রে লোনের সুবিধা পাওয়া যায়। আসলে প্রথমে এই ব্যবসার জন্য একটি প্রজেক্ট রিপোর্ট তৈরি করে গ্রামোদ্যোগ যোজনার মাধ্যমে লোনের অ্যাপ্লাই করতে হয়। আর প্রায় ৯০% লোন পাওয়া যেতে পারে। আর এই ইন্ডাস্ট্রিকে বাড়ানোর জন্য প্রতি বছর লোন দেওয়া হয় ও যে কোনো মানুষ এই লোনের সুবিধা উপভোগ করতে পারবে। এছাড়া জানিয়ে দি যে এই ব্যবসায় মেটিরিয়াল কেনা ও ছোট-বড় বিভিন্ন খরচার পর ১০০০ কুইন্টাল চিঁড়ে উৎপাদন করতে মোট খরচ হয় প্রায় ৮.৬০ লাখ টাকা। আর এই ১০০০ কুইন্টাল চিঁড়ে আপনি বাজারে বিক্রি করে মোট ১০,০০০ টাকা আয় করতে পারবেন। অর্থাৎ প্রায় ১.৪০ লাখ টাকা লাভ করা সম্ভব।

 

 

Related Articles

Back to top button