নিজেদের ফিট রাখতে এই ধরনের খাবার খায় গোটা আম্বানি পরিবার, রাঁধুনিদের দেওয়া হয় লাখ লাখ টাকা

ভারত ও গোটা এশিয়ার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি হলো মুকেশ আম্বানি। তিনি নিজের কঠোর পরিশ্রম দ্বারা আজ এই জায়গায় পৌঁছাতে পেরেছেন। এমনকি বিশ্বের ১০ জন সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের তালিকায় মুকেশ আম্বানির নাম রয়েছে। এছাড়া আম্বানি পরিবার প্রায় আলোচনায় থাকেন তাদের খরচা ও লাক্সারি জীবনযাপনের জন্য।

এমনকি মুকেশ আম্বানির স্ত্রী নিতা আম্বানিও খুব সৌখিন ও লাক্সারি জীবনযাপন করেন। তিনি যেই চা খান তার দাম পর্যন্ত লাখ টাকা। বলা যেতে পারে বিশ্বে এমন কোনো দামি জিনিস নেই যেটা আম্বানিকে কাছে নেই। যেমন মুকেশ আম্বানির এন্টিলিয়া নামক বাড়িটি এই বিশ্বের সবথেকে দাবি বাড়ি এবং এটি একমাত্র আম্বানির কাছেই রয়েছে।

বলা হয় এই বাড়িতে সুইমিংপুল, স্পা, সিনেমাহল ইত্যাদি জিনিসের সুবিধা আছে। আর এই বাড়িতে যেই সব স্টাফেরা কাজ করে তাদের আম্বানি সমস্ত সুযোগ সুবিধার সাথে লাখ লাখ টাকা বেতন দেন। যেই মাইনের চাকরি পাওয়ার জন্য লোকে লাখ লাখ টাকা খরচ করে প্রফেশনাল ডিগ্রির কোর্স করে, আম্বানির বাড়ির রাঁধুনি কোনো শিক্ষাগত যোগ্যতা ছাড়া সেই মাইনে পায়।

একটি রিপোর্ট থেকে জানা গেছে আম্বানির বাড়িতে যারা রান্নার কাজ করে তাদের মাসিক বেতন হলো ২ লাখ টাকা এবং মাইনের সাথে সাথে তারা আরো বিভিন্ন ধরণের সুযোগ সুবিধাও পায়। যেমন ইন্সুরেন্স বিমা ও স্টাফদের বাচ্চার পড়ারসোনার খরচও মুকেশ আম্বানি দেয়। আপনি জানলে অবাক হবে তাদের বাড়ির রাঁধুনির বাচ্চারাও বিদেশে পড়াশোনা করে।

আর এই রান্নার লোকেদের এতো কিছুর বদলে খুব একটা কিছু কাজও করতে হয় না কারণ আম্বানিরা নিরামিষ ভোজী এবং তারা খুব সাধারণ খাওয়ার খেতে পছন্দ করে। তবে জানিয়ে দি মুকেশ আম্বানির অধিনে চাকরি পাওয়া খুব একটা সোজা ব্যাপার নয়। কারণ মুকেশ আম্বানির কাছে সামান্য ড্রাইভারের চাকরি পেতে গেলেও বিভিন্ন রকম টেস্টে পাশ করতে হয় তবে গিয়ে তার অধীনে চাকরি পাওয়া যায়। সূত্র থেকে জানা গেছে যে শুধুমাত্র মুকেশের বাড়িতে কাজের লোকের সংখ্যা ১০০০ এর বেশি।

 

 

Related Articles

Back to top button