এক সময় করতেন ধাবা-তে কাজ, দ্বাদশ শ্রেণী পাস ছেলে আজ নিজের দমে তৈরি করেছেন ১ কোটি টাকার সম্পত্তি

আজ এমন একজন উদ্যোক্তার গল্প বলা হবে যার স্বপ্ন ছিল একটি রিসোর্ট খোলার। এই ক্ষেত্রে নতুন হওয়ায় তিনি প্রথমে লুধিয়ানার একটি ধাবা থেকে ব্যবসা শুরু করেন। আজ সেই ব্যক্তিই হিমাচল প্রদেশে একটি বিলাসবহুল রিসোর্ট চালাচ্ছেন। বলা হচ্ছে অঙ্কুশ কক্করের (Ankush Kakkar) কথা। বর্তমানে তিনি হিমাচল প্রদেশে ট্রিওইস রিসোর্ট পরিচালনা করছেন।

অঙ্কুশ (Ankush) বলেন, “আমরা ছোটবেলা থেকেই সংগ্রাম দেখে আসছি। আমার বাবা শালের দোকান চালান। ছোটবেলায় লেখাপড়ার পাশাপাশি বাবাকে কাজে সাহায্য করতাম। স্কুলের পর দোকানে কাজ করতাম। তবে দ্বাদশ শ্রেণীতে গিয়ে বুঝলাম বাবার দোকানটা আমাকেই এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তাকে আর্থিকভাবে খুব শক্তিশালী হতে হবে।” ১২ শ্রেণীতে অঙ্কুশ ব্যবসায়িক দক্ষতা প্রশিক্ষণ নেওয়ার কথা ভেবেছিল।

তারপরে এই প্রশিক্ষণ শেষ হওয়ার পরে, ২০০০ সালে, অঙ্কুশ তার বাবার সাথে লুধিয়ানা বাসস্ট্যান্ডের কাছে একটি ধাবা খোলেন। অঙ্কুশ কক্করের এই ধাবা খুব তাড়াতাড়ি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এবং তার বিক্রিও বাড়তে থাকে। তারপর কিছু সময় পরে তার আর্থিক অবস্থাও মজবুত হয়। তারপর অঙ্কুশ কক্করও লুধিয়ানায় একটি ৪২ বেডের হোটেল কিনেছিলেন।

অঙ্কুশ বলেছেন, যারা কঠোর পরিশ্রম করে এবং আশা রাখে তাদের কাযে সাফল্য আসবেই। একইভাবে, অঙ্কুশ তার স্বপ্নকে পুরন করতে পরিশ্রম এবং নিষ্ঠার সাথে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অঙ্কুশ ২০২০ সালে হিমাচল প্রদেশের বাড্ডিতে ৩৩০০০ স্কয়ার ইয়ার্ডে তার প্রথম রিসোর্ট খোলেন। এই রিসোর্টের নাম – ট্রিওইস রিসোর্ট।

অঙ্কুশ বলেছেন, “লুধিয়ানায় আমার ধাবা এবং হোটেল ব্যবসা থেকে আমি যা আয় করেছি, সবই রিসর্টে বিনিয়োগ করেছি। আমি এতে ৩ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছি।” ২০২১ সালের মার্চের মধ্যে রিসোর্টের টার্নওভার ১.২ কোটি টাকায় পৌঁছেছে এবং রিসর্টটি ১৩.৪ লক্ষ টাকা লাভ করেছে।

Related Articles

Back to top button