৫ টি এমন সিনেমা যেখানে কোন নায়ক নায়িকা নয় বরং প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেছে একটি কুকুর

বলিউডে হোক কিংবা হলিউডে যত ফিল্ম তৈরি হয় সেই সব ফিল্ম গুলির মুখ্য চরিত্রে দেখা যায় অভিনেতা বা অভিনেত্রীকে। আর মানুষ এই ধরণের ফিল্মই সাধারণত দেখতেও খুব পছন্দ করে থাকে। কিন্তু খুব কম ফিল্ম রয়েছে যেখানে কোনো পশু কে মুখ্য চরিত্রে দেখানো হয় বা পশুটির সাথে মানুষের সম্পর্কের গভীরতার উপর ভিত্তি করে ফিল্ম তৈরি হয়। আসলে গোটা বিশ্ব জুড়ে তুলনামূলকভাবে পশুপ্রেমীদের মার্কেটটা ছোট তাই এই জাতীয় ফিল্মগুলি অন্য ফিল্মের মতো সেরকম আয় করতে পারে না তাই এই ফিল্ম গুলি হলিউড হোক বা ভারতে খুব কম তৈরি হয়ে থাকে।

কিন্তু কিছু কিছু পশু ভিত্তিক ফিল্ম ভারত ও হলিউডে তৈরি হয়েছে অর্থাৎ যেখানে পশুকে মুখ্য চরিত্রে দেখানো হয়েছে। আর এই ফিল্ম গুলি মারাত্মক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। অনেক ফিল্মেই পশুদের দেখানো হয় বিশেষ করে কুকুর বা বেড়ালকে কিন্তু সেখানে তারা মুখ্য চরিত্রে থাকে না বা সেখানে মানুষের সাথে সেই প্রাণীটির সম্পর্কের গভীরতাকে তুলে ধরা হয় না। আজ আমরা এই আর্টিকেলে ৫ টি ভারত ও হলিউডের ফিল্মের বিষয় আলোচনা করবো যেগুলি অনেকবেশি জনপ্রিয়তা পেয়েছে এবং এই ফিল্ম গুলিতে পশু বা বলা যেতে পারে কুকুরদের মুখ্য চরিত্রে দেখানো হয়েছে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে নির্মাতা কুকুর বা বেড়ালদেরকে ফিল্মে নেয় কারণ তাদের ট্রেনিং দিয়ে শুটিং করানো সোজা হয় এবং তারা আকারে ছোট হয়। তবে কিছু কিছু ফিল্ম রয়েছে যেখানে হাতি বা অন্যান্য প্রাণীদেরও নেওয়া হয়েছে।

১) 777 চার্লি: এই ফিল্মটি ২ দিন আগে অর্থাৎ ১০ই জুন ২০২২-এ মুক্তি পেয়েছে। এই ফিল্মটি পরিচালনা করেছেন কিরণরাজ কে। এই ফিল্মের মুখ্য চরিত্রে রয়েছে চার্লি নামের একটি কুকুর ও অভিনেতা রক্ষিত শেঠিকে মুখ্য চরিত্রে দেখা গেছে। এই ফিল্মে দেখানো হয়েছে যে রক্ষিত অর্থাৎ ফিল্মের চরিত্রে যার নাম ধর্মা হয়েছে তার জীবনটা কতটা অসুম্পূর্ণ ছিল। ধর্মার না কোনো বন্ধু ছিল আর না কোনো আত্মীয়। কিন্তু চার্লি (কুকুর) তার জীবনে আসায় তার জীবনটাকে সুন্দর করে তুলেছে। এই নিয়েই ফিল্মের গোটা গল্প। আপনি যদি এখনো ফিল্মটি না দেখে থাকেন অবশ্যই দেখুন আপনার নিশ্চই ভালো লাগবে। এই ফিল্মটি কমেডি ও ড্রামায় ভরপুর। এছাড়া ফিল্মটি হলো মালিয়াম ফিল্ম কিন্তু এটিকে হিন্দি ভাষায় ডাবিং করেও মুক্তি দেওয়া হয়েছে।

২) এন্টারটেন্টমেন্ট: ২০১৪ সালে আসা ফরহাদ সামজি ও সাজিদ দ্বারা পরিচালিত ফিল্ম এন্টারটেন্টমেন্ট মুক্তি পেয়েছিল। এই ফিল্মের মুখ্য চরিত্রে ছিল একটি কুকুর যার নাম ফিল্মে ছিল এন্টারটেন্টমেন্ট ও বাস্তবে এই কুকরটির নাম ছিল জুনিয়ার। এছাড়া এই ফিল্মের মুখ্য চরিত্রে অক্ষয় কুমারও ছিল। এই ফিল্মটি একটি কমেডি ফিল্ম ছিল যেখানে অক্ষয়ের বাবা নিজের পুরো সম্পত্তি তার ছেলের নামে না করে তার পোষা কুকুর এনট্রাটেন্টমেন্টের নামে করে দিয়েছিল। এই কুকুরটিকে ৩০০০ কোটি টাকার মালিক দেখানো হয়েছিল। এই ফিল্মে কুকুরটি তার দুস্টুমি ও কিউটনেস দিয়ে লোকের মন জয় করে নিয়েছিল এবং ফিল্মটি অনেক জনপ্রিয়তা লাভ করেছিল।

৩) টোগো: গত শতাব্দীর ২০ দশককে কেন্দ্র করে আবর্তিত টোগো ফিল্মটিকে বিশ্ব চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে সেরা ফিল্ম বলে গণ্য করা হয়। চলচ্চিত্রটিতে উইলিয়াম ডুফোরকে প্রধান অভিনেতা হিসাবে দেখা গেছিল। এই ফিমে ডুফোর তার একাকীত্ব কাটাতে একটি কুকুরকে দত্তক নিয়েছিল ও তাকে এমনভাবে প্রশিক্ষণ দেয় যে কুকুরটি যুদ্ধের সময়ও তার সঙ্গ দিয়েছিল।

৪) দ্যা কল অফ দ্যা ওয়াইল্ড: বিশ্ব চলচ্চিত্রে কুকুরের জীবন নিয়ে নির্মিত সেরা চলচ্চিত্রর কথা বলতে গেলে একটি নামই মাথায় আসে আর সেটা হলো ‘দ্য কল অফ দ্য ওয়াইল্ড’।এই ফিল্মে কুকুরের অভ্যন্তরীণ জীবন ও সমস্যাগুলো দর্শকদের সামনে খুব ভালোভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। এই ফিল্মটির ২০ মিনিটের অ্যাকশন সিকোয়েন্স দেখে দর্শকদের গায়ে কাঁটা দিয়ে উঠেছিল। ফিল্মের মুখ্য চরিত্র যে একটি কুকুর সে তার মালিকের প্রাণ স্নো ফল থেকে বাঁচাতে নিজের প্রানের ঝুঁকি নিতে পিছু পা হয়নি।

৫) দ্যা ডগস ওয়ে হোম: চার্লস মার্টিন স্মিথ পরিচালিত ২০১৯ সালে মুক্তি পাওয়া এই ফিল্মটিতে একটি কুকুরকে মুখ্য চরিত্রে দেখানো হয়েছে। এই ফিল্মে কুকুরটি অর্থাৎ যার নাম ফিল্মে বেলা হয়েছে সে তাকে তার মালিক নিজের আত্মীয়র বাড়ি পাঠিয়ে দেয় কারণ তার মালিক যেই শহরে বসবাস করতো সেখানে পিট বুল জাতীয় কুকুর পোষা নিষেধ ছিল। কিন্তু কুকুরটি আত্মীয়র বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে আবার অনেকটা লম্বা যাত্রা করে তার মালিকের বাড়ি ফিরে আসে। এই ফিল্মে অনেক এডভেঞ্চার, কমেডি ও বিশেষ করেমালিক আর তার কুকুর বেলার ভালোবাসাকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। এই ফিল্মে অন্য প্রাণীদেরও দেখানো হয়েছে যেমন একটি বাঘ। এই বাঘটিও ফিল্মের গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্র পালন করেছিল।এই ফিল্মটি মারাতত্বক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল।

 

Related Articles

Back to top button