কেন মাধুরী দীক্ষিত ও অমিতাভ বচ্চন একসাথে করেনি কোন ফিল্ম, এই প্রথমবার বেরিয়ে এল কারণ

বলিউড সম্রাট অমিতাভ বচ্চন এবং সুন্দরী অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিত কখনোই একসঙ্গে স্কিন শেয়ার করেননি। কথাটা শোনার পর হয়তো অনেকে বিশ্বাস করবেন না, কিন্তু এটাই সত্য। প্রায় ৫ দশকের ক্যারিয়ারে অমিতাভ বচ্চন অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিতের সাথে কোন ছবি করেননি। আসুন এর কারণ জেনে নিন।

বলিউডের দুই তারকা একসঙ্গে কাজ না করার বিষয়টি আশ্চর্যজনক হলেও এর পিছনে কারণটা একটু বেশি মর্মান্তিক। ৮০র দশকে মাধুরী দীক্ষিত বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। তখন তিনি দর্শকদের কাছে খুব বেশি জনপ্রিয়তা পাননি। অনেক বড় অভিনেতাকে এড়িয়ে যেতেন, আসলে এর কারণ ছিল অভিনেতা অনিল কাপুর।

মাধুরী দীক্ষিত ১৯৮৮ সালে ‘অবোধ’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তাঁর অভিনয়ের আত্মপ্রকাশ করেন। কিন্তু ছবিটি ফ্লপ প্রমাণিত হয়। এরপর তিনি আরো অনেক ছবিতে কাজ করেছেন। কিন্তু কোনো ছবিতেই তিনি তাঁর চমক দেখাতে পারেননি। ফলস্বরূপ অনেক বড় অভিনেতা তখন তাঁর সাথে কাজ করতে চাইতেন না। তেমনই সময় অমিতাভ বচ্চনও তাঁর সাথে কাজ করতে চাইতেন না। কিন্তু সেই সময় মাধুরী দীক্ষিতের পাশে দাঁড়ালেন অভিনেতা অনিল কাপুর।

অনিল কাপুর ‘তেজাব’ ছবিতে কাজ করেন মাধুরী দীক্ষিতের সাথে। যা সম্পূর্ণরূপে তাঁর ক্যারিয়ারের দিক পরিবর্তন করে। এই ছবির পর ‘বেটা’, ‘হেফাজত’ এবং ‘পারিন্দা’র মতো আরও অনেক ছবিতে কাজ করেছিলেন অভিনেত্রী অনিল কাপুরের সাথে। প্রতিটি সুপারহিট হয়েছিল। মাধুরী দীক্ষিত সুপারস্টার হয়ে উঠলেন। তবে অনিল কাপুর অমিতাভ বচ্চনের সাথে একটি ছবির কাজ করতে প্রত্যাখ্যান করেন এবং মাধুরী দীক্ষিতও অমিতাভ বচ্চনের সাথে কোন ছবিতে কাজ করেননি।