হু ইজ কে কে? ওঁর চেয়ে অনুপম-ইমন-আমি ঢের ভাল শিল্পী’, সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ভাইরাল রুপঙ্করের ভিডিও

গতকাল কেকে (KK) আসেন কলকাতাতে প্রোগ্রাম করার জন্য। উলটোডাংগার স্যার গুরুদাশ কলেজ আয়োজিত এই প্রোগ্রাম হয় নজরুল মঞ্চে। সেই প্রোগ্রাম শেষেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। এরপরেই মৃত বলে ঘোষনা করা হয় এমনটাই জানা যাচ্ছে। অন্যদিকে গতকাল সকালেই সঙ্গীতশিল্পী রূপঙ্কর বাগচী (Rupankar Bagchi) এমন বিস্ফোরক মন্তব্য করেন যাকে ঘিরে তুমুল আলোচনার শিকার হন তিনি।

তাঁর মূল ক্ষোভ, মুম্বইয়ের শিল্পীরা বাংলায় আসায় যতটা উত্তেজনা দেখা যায়, ততটাই কেন বাংলার শিল্পীদের ক্ষেত্রে ঘটে না! এই প্রসঙ্গে ফেসবুক লাইভে এসে যাবতীয় ক্ষোভ উগরে দেন রূপঙ্কর (Rupankar)। ক্ষোভ উগরে দিলেন বাংলার সঙ্গীতপ্রেমী শ্রোতাদের উদ্দেশে। কেকের (KK) কনসার্ট ঘিরে শুরু থেকেই শ্রোতাদের উত্তেজনা ছিল তুঙ্গে। তাঁর কনসার্টের বহু ছবি, ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে ভক্তরা।

এই ঘটনার ঠিক আগেই ফেসবুক লাইভে উপস্থিত হন রূপঙ্কর। ওড়িশায় ওয়েব সিরিজের শুটিংয়ের ফাঁকেই বিস্ফোরক তিনি। রূপঙ্করের বক্তব্য, কে কে-নজরুল মঞ্চেও ভাল পারফর্ম করেছেন কিন্তু তাঁকে নিয়ে এত উত্তেজনা কেন? রূপঙ্করের দাবি, কে কে-র থেকে অনুপম রায়, ইমন চক্রবর্তী, রাঘব, মনোময় এবং তিনি অনেক ভাল শিল্পী।

তাঁর তুলনায় অনেক ভাল গান করেন বাংলার শিল্পীরা। তবে তাঁদেরকে নিয়ে সেভাবে মাতামাতি করা হয় না কেন? রূপঙ্কর বললেন, ‘আপনারা মুম্বইকে নিয়ে এত মাতামাতি করে যাচ্ছেন। দক্ষিণ ভারতকে দেখুন, পাঞ্জাবকে দেখে শিখুন, ওড়িশাকে দেখুন। বাঙালি হন। বাঙালি হন প্লিজ!’

এই মন্তব্যকে কেকের ফ্যানরা ভালো ভাবে নেন নি। তাদের বক্তব্য সেই দিনই এমন মন্তব্য করতে হল,আর সেই দিন রাতেই কেকে মারা গেলেন। এমনটা বলা উচিত হয় নি। তারা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। অনেকে সোশ্যালমিডিয়া সাইডে লেখেন ‘এটা মেনে নেওয়া যায় না। এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না যে তিনি আর নেই’।

Related Articles

Back to top button