সোজাসুজি নয় বরং উল্টো ভাবে সাঁতার কাটে এই মাছ, জীবন ১৫ বছর! এই অদ্ভুত জীবনশৈলীর কারণ জানালেন বিজ্ঞানীরা

বিশ্বে অনেক রকম জীব আছে যেগুলিকে প্রকৃতি খুব আজব ভাবে তৈরি করেছে। এদের মধ্যে কাউকে দেখতে আজব আবার কারুর নিয়ম-কানুন আজব ধরণের হয়। আর এই আলাদা আলাদা ধরণগুলি একজনকে আরেকজনের থেকে আলাদা বানায়। আজ আমরা এই আর্টিকেলে একটি মাছের বিষয় আলোচনা করবো যার সাঁতার কাটার পদ্ধতি ও ধরণ-ধারণ অন্য মাছেদের থেকে আলাদা হয়। আর এই মাছটি আলাদা কারণ এই মাছটি অন্য মাছেদের মতো সোজা নয় বরং উল্টো হয়ে সাঁতার কাটে। অনেকে মাছেদের এরকম উল্টো দেখে ভেবে বসে যে মাছটি মোড়ে গেছে কারণ মরে গেলে সাধারণত এরকম উল্টে যায়।

কঙ্গো বেসিনে বসবাসকারী আপসাইড ডাউন ক্যাটফিশ প্রজাতির অনেক মাছ রয়েছে যারা সোজা সাঁতার না কেটে উল্টো হয়ে সাঁতার কাটে। তবে এই মাছের জন্য উল্টো সাঁতার কাটা কোনো বিচিত্র ব্যাপার নয়। আপনি জানলে অবাক হবেন যে হাজার বছর আগে মানুষ এই মাছের কথা জানত পর্যন্ত না। মিশরে নির্মিত ৪০০০ বছরের পুরনো সমাধিতেও উল্টো মাছের থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

সূত্র থেকে জানা গেছে মিশরে সেই সময়ে উল্টো মাছের লকেট তৈরি করার ট্রেন্ড ছিল খুব বেশি। সেখানে এটা বিশ্বাস করা হতো যে এই উল্টো মাছের লকেট পড়বে সে কখোনো জলে পরে গেলে ডুববে না। এই উল্টো ক্যাট ফিশ কপ্রজাতির মাছ গুলি খুব সহজেই অ্যাকোয়ারিয়ামে পালন করা সম্ভব। এদের আয়ু সাধারণত ১৫ বছর পর্যন্ত হতে পারে এবং লম্বায় এরা ২০ ইঞ্চি পর্যন্ত বৃদ্ধি পায়। এখন প্রশ্ন হচ্ছে যে মাছ গুলি কেন উল্টো সাঁতার কাটে?

অ্যামিউজিং প্ল্যানেট ওয়েবসাইটের রিপোর্টে বলা হয়েছে যে এই মাছ গুলি উল্টো সাঁতার কাটে যাতে তারা সহজেই তাদের খাবার সংগ্রহ করতে পারে। এসব মাছ জলে পড়ে থাকা কাঠ থেকে বা পানির ভেতরে ঝুলে পরা গাছের গুঁড়ির নিচে থেকে খাবার সংগ্রহণ করে। তাই কান্ডের নিচে গিয়ে ভালো করে খাওয়ার উদ্দেশ্যে তারা উল্টে সাঁতার কাটে। এইভাবে সাঁতার কাটলে তারা খুব সহজে ছোট পোকামাকড়, লার্ভা ইত্যাদি ধরতে পারে।

বিজ্ঞানীরা গবেষণাগারে আরও আবিষ্কার করেছেন যে এই ক্যাটফিশগুলি যখন জলের পৃষ্ঠের কাছাকাছি উল্টো করে সাঁতার কাটে তখন তারা পৃষ্ঠের কাছে উপস্থিত অক্সিজেন সহজে গ্রহণ করতে পারে। জানিয়ে দি এই মাছের পেটের কাছে একটি সুইমিং ব্লেন্ডার থাকে যা এদের জলে সোজা সাঁতার কাটতে সাহায্য করে এবং জলে গোল ভাবে ঘুরতে দেয় না। আর এই কারণেই তাদের ভারসাম্য বজায় থাকে। কিন্তু যখন এই মাছ মারা যায় তখন এই সুইমিং ব্লেন্ডারটি কাজ করা বন্ধ করে দেয় এবং এদের ভারসাম্য নষ্ট হয়ে যায়। আর এই কারণে মাছ জল মরার পর উল্টে যায়।

Related Articles

Back to top button