মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় মিলল পুরুষ তিমির মৃতদেহ, পেট থেকে বেরিয়ে এল প্লাস্টিক বর্জ্য পদার্থের ভান্ডার

সমুদ্রের অভ্যন্তরে অনেক ময়লা থাকে। কিন্তু বারবার সতর্ক করা হয় কোনো জলাশয়ে ময়লা যাতে না ফেলা হয় ।এবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উপকূলে একটি তিমি মাছ পাওয়া গেছে। তবে দুঃখের বিষয় হলো তিমি মাছটির মৃতদেহ পাওয়া গেছে। তিনি মাছটি শুক্রাণু অবস্থায় ছিল। তিনি মাছের পেট থেকে প্রচুর আবর্জনা উদ্ধার করা হয়েছে।

যার মধ্যে প্লাস্টিকের ব্যাগ সবথেকে বেশি রয়েছে। বিশেষজ্ঞরা দাবি করছেন প্লাস্টিকের জিনিস খেয়েই তিমি মাছটি মারা গিয়েছে। মৃত তিমির পেট থেকে পাওয়া গেছে প্লাস্টিকের ব্যাগ। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় কিস উপকূলে এই পুরুষ স্পার্ম তিমি মাছটি উদ্ধার হয়েছে। ফিশ অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ রিসার্চ ইনস্টিটিউট (এফডব্লিউসি) জানিয়েছে, সেই মৃত তিমিটি ৪৭ ফুট লম্বা।

পুরুষ স্পার্ম তিমি কিভাবে মারা গেল?

বিশেষজ্ঞ দল , তিমিটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে যখন পেট থেকে প্লাস্টিকের বর্জ্য উদ্ধার করেন, তখন সেটি দেখে তাঁরা বিস্মিত হয়ে পড়েন। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন,কোনো ভাবে তিমির পেটে প্লাস্টিক বর্জ্য আটকে যায়, যে কারণে তিমিটি ঠিকমতো খেতে পারছিল না। ফলে তিমিটির মৃত্যু হয়। বিশেষজ্ঞদের অনুমান, ফ্লোরিডার হ্রদ থেকে সাগরে ভেসে আসা বর্জ্য এখানকার প্রাণী জগতকে এভাবে প্রতিনিয়ত হত্যা করে চলেছে। সাগরে ভেসে আসা প্লাস্টিকের বিভিন্ন বর্জ্য গুলি প্রাণীরা খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করছে। প্লাস্টিক অপচনশীল হওয়ার কারণে সামুদ্রিক প্রাণীর মৃত্যু ঘটছে।

বিশেষজ্ঞরা মৃত্যুর কারণ জানতে তদন্ত করছেন।

ফ্লোরিডার সেন্ট পিটার্সবার্গে অবস্থিত FWC-এর বিশেষজ্ঞরা তদন্তের জন্য তিমির পেট থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছেন। তিমির মৃত্যুর আসল কারণ জানার জন্যই এই তদন্ত করবেন। সাগরে এই সমস্ত বর্জ্য কিভাবে আসলো এবং কিভাবেই বা তিমির পেটে এই সমস্ত বর্জ্যগুলো পৌঁছালো তার সমস্ত খুঁটিনাটি তদন্ত করা হবে এমনটাই জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। মৃত তিমিটি আবিষ্কারের পর বিজ্ঞানীরা খুবই হতবাক হয়েছেন, তাদের দাবি আগামী দিনে যেন এভাবে সামুদ্রিক প্রাণীর মৃত্যু না হয়।

স্পার্ম তিমি সবচেয়ে বড় দাঁতওয়ালা প্রাণী

বিশ্বের বৃহত্তম দাঁতযুক্ত প্রাণী হল স্পার্ম তিমি। পুরুষ তিমির দাঁতের সংখ্যা প্রায় ৫০টি এবং দাঁত গুলি আকারেও বড় হয়। এই তিমির একটি দাঁতের ওজন প্রায় ১ কেজি বা তার কাছাকাছি হয়। সমগ্র তিমিটির ওজন সম্পর্কে বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, একটি পুরুষ তিমির ওজন প্রায় ৪০ হাজার কিলোগ্রাম এবং একটি মহিলা তিমির ওজন ১৪ হাজার কিলোগ্রামের কাছাকাছি হয়। পুরুষ ও মহিলা তিমি ছাড়াও আরও দুধরনের তিমি আছে। সেগুলো হলো ছোট ‘পিগমি স্পার্ম তিমি’ এবং অনেক ছোট ‘বামন স্পার্ম তিমি’ । পুরুষ তিমির মাথার একটি ‘শুক্রাণু’ নামক অঙ্গ থাকে, যেটি তেলে ভরা।

Related Articles

Back to top button