মাত্র 10 টাকার টাটা গ্রুপের এই শেয়ারটি বেড়ে দাঁড়িয়েছে 600 টাকা তে, বিনিয়োগকারীরা হয়েছেন লাভবান

টাটা মেটালিক্স (Tata Metaliks) ভারতের শীর্ষস্থানীয় পিগ আয়রন প্রস্তুত কারক এবং বিক্রেতা। এই কোম্পানি ১৯৯০ সালে স্থাপিত হয়েছিল। বর্তমানে টাটা মেটালিক্স বার্ষিক ৬,৫০,০০০ টন পিগ আয়রন প্রস্তুত করে থাকে এবং এর মার্কেট ক্যাপিটাল প্রায় ২০৭১.০১ কোটি টাকা। সেইসঙ্গে টাটা স্টিলের দ্বারা পরিচালিত এই কোম্পানিটি বিগত কয়েক বছরে তার শেয়ার হোল্ডারদের দুর্দান্ত রিটার্ন দিয়েছে।

Tata Metaliks Share

টাটা মেটালিক্সের শেয়ার সময়ের সাথে বিনিয়োগকারীদের ৬০০০ শতাংশেরও বেশি রিটার্ন দিয়েছে। এই কোম্পানির শেয়ার কয়েক বছরের মধ্যে ১০ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ৬০০ টাকা। Tata Metaliks শেয়ারের ৫২-সপ্তাহের সর্বোচ্চ স্তর ছিল ₹১৩৬৪.২০ টাকা। আর ৫২-সপ্তাহের সর্বনিম্ন স্তর ₹৬২২.৪৫ টাকা।

শেয়ার ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে (NSE)-এর তথ্যের ভিত্তিতে ১৯৯৯ সালের জানুয়ারি মাসের -এ টাটা মেটালিক্স লিমিটেডের শেয়ার মূল্য ১০ টাকার স্তরে ছিল। আর সেই ১০ টাকার শেয়ারের ভ্যালু ২২শে জুন ২০২২ তারিখে ৬৫৩.৫০ টাকা হয়েছে। তো অ্যানালিসিস অনুযায়ী এই নির্দিষ্ট সময়কালের ভিতরে কোম্পানিটির শেয়ার ৬৪৩৫ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে। তাহলে ধরা যেতে পারে কোন ব্যক্তি যদি ১লা জানুয়ারী,১৯৯৯ তে মেটালিক্স কোম্পানির শেয়ারে ১ লাখ টাকা বিনিয়োগ করতেন এবং বিনিয়োগ ধরে রাখতেন তাহলে সেই শেয়ার হোল্ডার ৬৫.৩৫ লাখ টাকা রিটার্ন পেতেন।

অন্যদিকে ২ রা, আগস্ট ২০১৩ সালের নিরিখে টাটা মেটালিক্সের শেয়ার ২৭.৪০ টাকার স্তরে ছিল। যেটা ২২ শে জুন, ২০২২ তারিখে এসে ৬৫৩.৫০ টাকা হয়েছে। এখন যদি একজন ব্যক্তি ২ আগস্ট, ২০১৩ তারিখে এই কোম্পানির শেয়ারে ১ লাখ টাকা বিনিয়োগ করতেন এবং স্টকটি ধরে রাখতেন, তাহলে বর্তমানে তার বিনিয়োগ করা ১ লক্ষ টাকাটি প্রায় ২৩.৮৫ লক্ষ টাকায় রূপান্তরিত হত। তবে এই শেয়ারের পারফরমেন্স বর্তমানে অনেকটাই কমে গিয়েছে। গত এক বছরে ৪১ শতাংশ কমেছে এর শেয়ার মূল্য। একইসঙ্গে চলতি বছর কমেছে প্রায় ২৩ শতাংশ।

Ratan Tata

বিঃদ্রঃ এখানে শুধুমাত্র স্টকের কর্মক্ষমতা সম্পর্কিত তথ্য দেওয়া হয়েছে। স্টক মার্কেটে বিনিয়োগ ঝুঁকি সাপেক্ষ। তাই বিনিয়োগ করার আগে অনুগ্রহ করে আপনার উপদেষ্টার সাথে পরামর্শ করুন।

Related Articles

Back to top button