দুর্দান্ত আইডিয়া লাগিয়ে ৪বছর আগে শুরু করেছিলেন ব্যবসা, আজ ১৪ হাজার কোটি টাকার মালিক

সুমিত গুপ্ত তার ক্যারিয়ারের শুরু থেকে সফল হওয়া পর্যন্ত বিভিন্ন কাজ করেছেন। তিনি 2010 সালের মে থেকে জুলাই পর্যন্ত এল এস টি ইনফকেট (LST infocate) কোম্পানিতে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার ইন্টার্ন হিসেবে কাজ করেছে। এরপর কলম্বিয়া বিজনেস স্কুলের 2013 মে থেকে অক্টোবর পযন্ত এবং 2014 সালের মে থেকে 2015 অগস্ট পযন্ত একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করেছেন। এরপর সুমিত গুপ্তা 2018 সালে কয়েন ডিসিএক্স (CoinDCX) কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেছেন এবং সিইও (CEO) হয়েছেন।

সুমিত গুপ্তা ক্রিপ্টোকারেন্সি ( Cryptocarency) এক্সচেঞ্জ coinDCX ইউনিকর্ন সংস্থার প্রথম ভারতীয় ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ হয়ে উঠেছেন। প্রথমের দিকে এর গ্রাহক কম থাকলেও বর্তমানে এর ব্যবহারকারীর প্রায় 35 লাখ ছাড়িয়েছে। এর সাথে বহু অর্থ উপার্জন করেছেন। কোম্পানিটি একটি সিরিজ-সি ফান্ডিং রাউন্ডে $90 মিলিয়ন সংগ্রহ করেছে এবং coinDCX কোম্পানির মূল্যায়ন $1.1 বিলিয়নে পৌঁছেছে। আসুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে কয়েনডিসিএক্স কোম্পানি সাফল্য পেয়েছে।

বিদ্যমান বিনিয়োগকারী কয়েনবেস ভেঞ্চারস, পলিচেন ক্যাপিটাল, ব্লক ওয়ান ও জাম্প ক্যাপিটালও ফান্ডিং রাউন্ডে অংশ নিয়েছে। coinDCX-এর আধিকারিকরা জানিয়েছেন এই তহবিলের একটি বড় অংশ ভারতে ক্রিপ্টো কারেন্সি সম্পর্কে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়াবে। আরও জানিয়েছেন, কোম্পানিটি আগামী মাসে একটি বড় মাত্রার মূল্যে ব্যক্তিগত বিনিয়োগকারী এবং কয়েনডিসিএক্স এর প্রাইম চালু করবে। এছাড়া কোম্পানিটি সারা বিশ্বের ব্যবসায়িক পণ্য হিসেবে কসমেক্স চালু করতে চলেছে।

বর্তমানে ক্রিপ্টোকারেন্সির গ্রাহক প্রচুর বাড়ছে। তাছাড়া কোম্পানিটি 2021 সালে প্রায় 22 টি ভারতীয় কোম্পানি ও স্টার্টঅফ ইউনিকন সংস্থায় যোগ দিয়েছে। আধিকারিক সুমিত গুপ্তা জানিয়েছেন আমরা বন্ধুত্বপূর্ণ বিধি, শিক্ষা অফার ও নিয়োগের উদ্যোগ গ্রহণকে কাজে লাগাতে সরকারের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছি। প্রায় 4 বছর আগে এই প্রকল্প শুরু করে আজ মোট উপার্জন 14000 কোটি টাকারও বেশি। বর্তমানে coinDCX কোম্পানিটি ভারতের 4টি শীর্ষ থাকা ক্রিপ্টোকারেন্সি এর মধ্যে একটি।

Related Articles

Back to top button