বড় পর্দায় দেখাতে পারেনি কামাল! এবার ছোট পর্দা OTT প্লাটফর্মে মুক্তি পেতে চলেছে অক্ষয়ের পৃথ্বীরাজ

বলিউডের জনপ্রিয় ও ট্যালেন্টেড অভিনেতা হলো অক্ষয় কুমার (aksay Kumar)। দর্শকরা তার অভিনয় ও ফিল্ম দেখার জন্য রীতিমতো পাগল হয়ে থাকে। এমকনকি অভিনেত্রীরাও অক্ষয়ের সাথে ফিল্মে কাজ করার জন্য রেডি থাকেন। অক্ষয় এতটাই ট্যালেন্টেড ও জনপ্রিয় অভিনেতা যে সবাই চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করে যে তিনি যেই ফিল্মে রয়েছেন সেই ফিল্ম এক কথায় সুপারহিট হবে। ৯০ দশক থেকে শুরু করে এখনো পর্যন্ত অক্ষয় একের পর এক হিট ফিল্মে কাজ করেছেন এবং নিজের অভিনয় দ্বারা দিনের পর দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। তবে ২০২২ সাল যেন অক্ষয়ের জন্য খুব একটা ভালো প্রমান হচ্ছে না। এই বছরটি সত্যি অক্ষয়ের জন্য খুব খারাপ কাটছে। এই বছর অক্ষয়ের যেইকটি ফিল্ম মুক্তি পেয়েছে সেইকটি বক্স অফিসে সুপার ফ্লপ প্রমানিত হয়েছে।

Aksay Kumar

গত ৩ জুন ২০২২-এ অক্ষয় কুমারের (aksay Kumar)অভিনীত ফিল্ম ‘সম্রাট পৃথ্বিরাজ’ মুক্তি পেয়েছিল। ফিল্মটি প্রথম কিছুদিন ভালো চললেও তারপর খুব একটা আয় করতে করতে পারেনি। যার ফলে ফিল্মটি ফ্লপ প্রমাণিত হয় এবং জলের মতো পরিষ্কার হয়ে যায় যে ফিল্মটি দর্শকদের ভালো লাগেনি। জানিয়ে দি ফিল্মটি ভালো খারাপ দুই ধরণের প্রতিক্রিয়াই পেয়েছে। আর ফিল্মের পাওয়া নেগেটিভ প্রতিক্রিয়ার পর থেকে অক্ষয়ের কেরিয়ার নিয়ে উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন। এমনকি অক্ষয়ের আপকামিং ফিল্ম গুলিকে নিয়ে ক্রিটিক্স খুব একটা ভালো রিভিউ দেয়নি। যার ফলে অভিনেতার ফিল্ম কেরিয়ার বিপদের সম্মুখীন হয়েছে।

Samrat prithviraj

বক্স অফিসের বিজনেস অনুসারে, অক্ষয় কুমারের ফিল্ম সম্রাট পৃথ্বিরাজ ফিল্মটি মুক্তির ১১তম দিনে মাত্র ১.২ কোটি টাকা আয় করেছে। ফিল্মটির এত কম আয় সত্যিই আশ্চর্যজনক বিষয়। জানিয়ে দি গত কিছু সময় ধরে অক্ষয় কুমারের ফিল্ম ক্রমাগত একের পর এক ফ্লপ হয়েই চলেছে। প্রথমে বেল বটম ফ্লপ হলো, তারপর বচ্চন পান্ডে এবং এখন সম্রাট পৃথ্বীরাজ।একটানা একেরপর এক ফিল্ম ফ্লপ হওয়ায় অক্ষয়কে নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে যে বোধহয় অক্ষয়ের কেরিয়ার এবার শেষ হতে চলেছে।২০০৮ সালে অক্ষয় যশরাজের ফিল্ম ‘টাশান’-এ কাজ করেছিলেন এবং সেই ফিল্মটি বক্স অফিসে ফ্লপ প্রমাণিত হয়েছিল। আজ ১৩ বছর পর অক্ষয় আবার যশরাজের ফিল্ম সম্রাট পৃথ্বিরাজ করলেন এবং এটিও বক্স অফিসে ফ্লপ প্রমাণিত হলো।

নির্মাতারা দাবি করেছেন তাঁরা এই ছবিটিকে বহু যত্ন নিয়ে, বিশাল অঙ্কের বাজেট রেখেই তৈরি করেছিলেন কিন্তু লাভ হল না। এই ফিল্মটি ফ্লপ হওয়ায় একটা মোটা অঙ্কের টাকার ক্ষতি হয়েছে। এই ছবির জন্য অভিনেতাদের পোশাক থেকে শুরু করে সেট নির্মাণ সবের জন্য মোট খরচ হয়েছিল প্রায় ২০০ কোটি টাকা। কিন্তু বক্স অফিসে ৫০ কোটি টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারেনি ফিল্মটি। সম্রাট পৃথ্বীরাজ ফিল্মে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন অক্ষয় কুমার। এই ফিল্মে মুখ্য অভিনেত্রীর ভূমিকা পালন করেছেন পূর্ব মিস ওয়ার্ল্ড মানুশি ছিল্লার। এছাড়া সঞ্জয় দত্ত, সোনু সুদ, আশুতোষ রানা ও সাক্ষী তানওয়ারকেও এই ফিল্মে অভিনয় করতে দেখা গেছে। পরিচালক চন্দ্রপ্রকাশ দ্বিবেদীর এই ফিল্ম পরিচালনা করছে এবং প্রোডিউস করেছে যশরাজ ফিল্মস।

Amazon prime ott platform

এখন বিশেষ খবর হলো অক্ষয়ের ‘সম্রাট পৃথ্বিরাজ’ ফিল্মটি এখন আসতে চলেছে ওটিটি প্লাটফর্মে (OTT platform)। তবে ওটিটিতে এলেও লাভের লাভ কিছুই হবে না। তাও নির্মাতারা যতটা পারছে হওয়া ক্ষতির পরিমান তোলার চেষ্টা করছে। রিপোর্ট থেকে জানা গেছে ফিল্মটিকে ১০ কোটি টাকায় কিনে নিয়েছে আমাজন প্রাইম। গতকাল অর্থাৎ ১ জুলাই থেকে ওটিটি প্লাটফর্ম আমাজন প্রাইমে এটিকে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। বলা হচ্ছে বক্স অফিস এবং ওটিটি (ott platform) মিলিয়ে মোট ৫০ কোটি উপার্জন করবে ছবিটি। কিন্তু বাকি ১৫০ কোটি?

মিডিয়া রিপোর্ট থেকে জানা গেছে যে বাকি ১৫০ কোটির মধ্যে ১০০ কোটি টাকা স্যাটেলাইট চ্যানেল থেকে তোলার পরিকল্পনা করছে পৃথ্বীরাজ এর টিম। তাও একটা মোটা অঙ্কের ক্ষতির বোঝা থেকেই যাচ্ছে। তবে এই বিষয় অক্ষয়ের পক্ষ থেকে কোনো রকম মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তিনি নিজের পরবর্তী ফিল্ম গুলি নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। জানিয়ে দি তার আপকামিং ফিল্ম হলো ‘রাম সেতু’ যা যা অটিটি-তে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল কিন্তু সিদ্ধান্তের পরিবর্তন ঘটিয়েছে অক্ষয় ও মেকার্সরা আর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বড় পর্দায় মুক্তি পাবে ফিল্মটি।

Bacchan Pandey

আরেকটি বিষয় জানিয়ে দি অক্ষয়ের এই বছর মুক্তি পাওয়া দুটি ফ্লপ ফিল্ম বচ্চন পাণ্ডে ও সম্রাট পৃথ্বিরাজ তার জীবনের একমাত্র ফ্লপ ফিল্মস নয়। এর আগেও অক্ষয় কুমারের প্রচুর ফিল্ম ফ্লপ হয়েছিল। এমনকি একবছর এমনও হয়েছিল অক্ষয় কুমারের ৯টি ফিল্ম সেই বছর ফ্লপ প্রমাণিত হয়েছিল। তারপর সময় বদলেছিল এবং অক্ষয় যেই ফিল্মে থাকতো সেগুলি হিট হবে ধরে নেওয়া হতো। ২০০ কোটির ক্লাবে ফিল্ম গুলি জায়গা পাচ্ছিল। কিন্ত এখন যেন অক্ষয়ের জীবনে সেই পুরোনো ফ্লপের দিনগুলি ফিরে এসেছে। তবে এখনো তাঁর ভক্তরা যথেষ্ট আশাবাদী তাঁর আগামী ফিল্মগুলো নিয়ে।

Related Articles

Back to top button