অবশেষে বিতর্কের জেরে নিজের মত পাল্টাতে বাধ্য হলেন রূপঙ্কর, বললেন আমারও কষ্ট হচ্ছে আমিও কে কে ভক্ত

গতকাল সকালেই কেকে (KK) কে নিয়ে মন্তব্য করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হন গায়ক রুপঙ্কর বাগচি। তিনি মন্তব্য করেছিলেন বাংলা গায়ক গায়িকাকে গুরুত্ব দেওয়া হয় না যতটা বম্বের গায়ক গায়িকাদের দেওয়া হয়। এই নিয়ে নেট পারায় অনেক সমালোচনা করা হয়। এর পরেই রাতে কলকাতা তেই প্রয়াত হন কেকে (KK)।

এর পরেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন কেকে (Kk) র ফ্যানরা। কেন তিনি কে কে র বিরুদ্ধাচারণ করলেন! তিনি তো সকলকে ছেড়ে চিরনিদ্রায় চলে গেলেন। অভিযোগের শত শত আঙ্গুল উঠেছে রুপঙ্কর এর উপর। তবে এবার কেকে র মৃত্যু বিষয় মুখ খুলেছেন তিনি। জানিয়েছেন ” কষ্ট হচ্ছে, কেকের বিরুদ্ধে আমি কিছুই বলতে চাইনি।’

‘বাংলা গান বাংলা সাহিত্যের পক্ষে কথা বলতে চেয়েছিলাম। মানুষ এটা বুঝতে না পারলে আমার খারাপ লাগবে।’ তিনি আরও জানিয়েছেন কেকের মৃত্যুতে আমি শোকাহত। বড় মাপের শিল্পী ছিলেন কেকে,বড় অসময় চলে গেলেন। এর আগে অনেক শিল্পী পৃথিবীর মায়া কাটিয়ে চলে গেছেন বটপ,কিন্তু কেকের তো যাওয়ার বয়সই হয়নি!

ফেসবুক লাইভে তিনি আরও বলেছিলেন ‘ হু ইজ কেকে? আমরা ওর থেকেও ভালো গান করি।’কোলকাতায় কেকের প্রোগ্রাম নিয়ে মানুষের যা উত্তেজনা তাকেই কটাক্ষ করে বাংলার এই গায়ক বলেন ‘ আমার তো মনে হল সোশ্যাল মিডিয়ায় আমার মনময়,সোমলতা,ইমন, রাঘব, উজ্জয়িনী বা রুপমের ও এমন গানের ভিডিও আছে।’

‘আমরা সবাই কেকের থেকেও ভালো গান গাই। কেন আপনারা আমাদের গানে এমন উত্তেজিত হননা?’ বাংলা গায়কের এই মন্তব্যকে অনেকেই ভালো ভাবে নিচ্ছেন না। পরে কেকের মৃত্যুতে যেন আরও রেগে যান কেকের ফ্যানরা। মাত্র ৫৩ বছর বয়সে সকলে ছেড়ে চলে গেলেন বিখ্যাত গায়ক কেকে। নজরুল মঞ্চে প্রোগ্রাম চলা কালিন অসুস্থ হয়ে যান তিনি। এর পরই হোটেলে ফিরে গিয়ে মৃত্যু হয় তার।

Related Articles

Back to top button