বড়োসড়ো ঝটকা পেতে চলেছেন আম্বানি, ৫ টি বড়ো ব্র্যান্ড কেনার মুডে রতন টাটা

ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় শিল্পপতি হলেন রতন টাটা(Ratan Tata). যিনি টাটা গ্রুপের চেয়ারম্যান। টাটা হলো ভারতের বৃহত্তম এবং সবচেয়ে লাভজনক কোম্পানিগুলির মধ্যে একটি। শুধু এদেশেই নয় পুরো বিশ্বেই টাটা গ্রুপের ব্যবসা ছড়িয়ে রয়েছে। স্টিল, ইলেকট্রিসিটি, মোটর গাড়ি থেকে শুরু করে এয়ারলাইন্স সার্ভিস প্রায় সব ক্ষেত্রেই ব্যবসা করে।

 

ভোগ্যপণ্যের বাজারেও টাটা গ্রুপ (Tata Group) শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে। বিভিন্ন খাদ্য, পানীয়, গ্রসারী আইটেম প্রস্তুত করে থাকে তারা। সেইসাথে তাদের রয়েছে বিশাল মার্কেট ক্যাপিটাল। তবে টাটা কনজুমার প্রোডাক্ট লিমিটেড তাদের কোম্পানিকে আরো প্রসারিত করতে চাইছেন। সেজন্য পাঁচটি শক্তিশালী ভোগ্যপণ্যের ব্র্যান্ড তাঁরা কেনার উদ্যোগ ইতিমধ্যেই নিয়েছেন।

টাটা কনসিউমার সংস্থার সিইও সুনীল ডি’সুজা জানিয়েছেন, তাঁরা টেটলি চা এবং এইট ও’ক্লক কফি বিক্রির ওপর বিশেষভাবে জোর দিতে চাইছেন। তবে নির্দিষ্টভাবে কোন ব্র্যান্ডগুলো তাঁরা কিনতে চলেছেন সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানাননি। তবে ডি’সুজা বলেছেন , কোন কোন পণ্যের চাহিদা বাজারে রয়েছে, এবং কোন পণ্যগুলি কিনতে ক্রেতারা আগ্রহী এসব খুঁটিনাটি বিষয়ে তাঁরা অনুসন্ধান করছেন।

টাটা কনজিউমার প্রোডাক্ট সংস্থাটি ২০২০ সালে গঠিত হয়েছিল। দুটি নামী পানীয় প্রস্তুতকারী কোম্পানি NourishCo Beverages ltd এবং Soulfull-এর অংশীদারিত্ব কিনে তাঁরা নিজেদের ব্যবসাকে আরও প্রসারিত করেছেন। তবে টাটা গ্রুপ তাঁদের নতুন পদক্ষেপ নিলেও তাঁদের সামনে রয়েছে বড় চ্যালেঞ্জ। কারণ ভোগ্যপণ্যের মার্কেটে টাটা গ্রুপকে শুরুতেই, মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্স রিটেলের পাশাপাশি গ্লোবাল জায়ান্ট ইউনিলিভারের সাথে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে পড়তে হতে পারে।

 

টাটা গ্রুপ তাঁদের বিজনেস সম্প্রসারণ পরিকল্পনা এমন সময়ে করেছেন যখন কোম্পানিগুলি বিশ্বব্যাপী মুদ্রাস্ফীতির কারণে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। পাশাপাশি ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধ, জাতীয় কৃষি পণ্য রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা এবং সরবরাহ চেইনের সমস্যার কারনে ভেতরের খরচ বাড়ছে।

Related Articles

Back to top button