ধুমধাম করে ছাগলের সাথে বিয়ে সারলেন এই ব্যাক্তি, দিলেন ১১৭ টাকা পন- ভাইরাল ভিডিও

আজকাল মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বিখ্যাত হওয়ার জন্য অনেক ধরনের উপায় গ্রহণ করে থাকে। কেউ হাসির ভিডিও (Viral Video) বানায়, কেউ ব্লগ তৈরি করে, কেউ নাচ বা গানের ভিডিও করে, কেউ বিভিন্ন ধরণের লেখার মাধ্যমেও বিখ্যাত হওয়ার চেষ্টা করে, কেউ নেগেটিভ জিনিস ছড়িয়ে ভাইরাল হওয়ার চেষ্টা করে এবং কেউ কেউ এমন অদ্ভুত কান্ড করে যার কোনো মাথা-মুন্ডু থাকে না।

Goat marriage

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি অদ্ভুত ভিডিও প্রচন্ড পরিমানে ভাইরাল হচ্ছে। এই ভিডিওটি দেখার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় হৈচৈ পরে গেছে। লোকে ভিডিওটির উপর অনেক প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে। ভিডিওটিতে ইন্দোনেশিয়ার একটি লোককে একটি ছাগলের সাথে বিয়ে করতে দেখা যাচ্ছে এবং আশেপাশের প্রচুর লোককে এই বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতেও দেখা যাচ্ছে। আসুন এই আর্টিকেলের মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ভিডিওর বিষয় বিস্তারিত জেনেনি।

রিপোর্ট থেকে জানা গেছে যে বিয়ে করা ব্যক্তিটির নাম হচ্ছে সাইফুল আরিফ ও তার বয়স হলো ৪৪ বছর। তিনি YouTube ও TikTok-এর একজন কন্টেন্ট ক্রিয়েটর হিসেবে পরিচিত। সাইফুল, ইন্দোনেশিয়ার বেনজেং জেলার ক্ল্যাম্পোক গ্রামে থাকেন। তিনি গত ৫ জুন ছাগলটিকে বিয়ে করেছেন। সমস্ত আচার-অনুষ্ঠান পালন করে ছাগলের সাথে সাইফুলের বিয়ে হয়েছে বলে জানা গেছে। বিয়েতে সেইফুলের আত্মীয়স্বজন ও গ্রামবাসীরাও উপস্থিত ছিলেন।

ভিডিওটিতে বরকে সম্পূর্ন বিয়ের সাজে দেখা যাচ্ছে এবং ছাগলটিকে একটি বিশেষ ধরনের পোশাক পরানো হয়েছে। বর নিজেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও আপলোড করেন এবং ভিডিওটি প্রচুর মাত্রায় ভাইরাল হয়। ‘সূর্য টিভি’ ও অন্যান্য অনেক টিভি চ্যানেলে এই ভিডিওটিকে নিজেদের-নিজেদের চ্যানেলে পোস্ট করে।

সাইমুলকে বিয়ে করার জন্য প্রথা অনুযায়ী ছাগলকে টাকা যৌতুক হিসেবে দেওয়া হয়। এই টাকার পরিমাণ ছিল ১১৭ টাকা। এই বিয়ের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ ভাইরাল হওয়ার পর এই ভিডিওটিকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় দারুন পরিমানে সমালোচনা শুরু হয়। একজন ইউজার এই ভিপিওতে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে লিখেছেন যে ‘এই ব্যক্তি তার মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন। এর চিকিৎসা দরকার।” আরেক ইউজার আবার বিয়েতে জড়িত সমস্ত ব্যক্তি ও সাইমুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে।

এরপর ক্রমশ বিবাদ বাড়তে দেখে সেইমুল সোশ্যাল মিডিয়ায় এসে নিজের মুখ খোলেন এবং জানান যে তিনি মজা করে ভিডিওটি তৈরি করেছিলেন এবং সত্যিকারের তার ওই ছাগলের সাথে বিয়ে হয়নি। ভিডিওতে যা দেখানো হয়েছে সেটা তার অভিনয়ের অংশ ছিল কারণ তার কাজ হলো অদ্ভুত কান্ড দ্বারা লোকের মনোরঞ্জন করা। তিনি শুধু ভাইরাল হওয়ার জন্য এই কাজ করেছেন বলে জানান। সবার শেষে তিনি ভগবান ও লোকেদের কাছে এই ভিডিও তৈরির জন্য ক্ষমা চান এবং কথা দেন যে এই ধরণের ভিডিও তিনি ভবিষ্যতে আর কখনো তৈরি করবেন না।

Related Articles

Back to top button