ভারতীয় রেলওয়ে চালু করলো নতুন নিয়ম, বেশি লাগেজ নিয়ে ট্রেনে উঠলে দিতে হবে এক্সট্রা টাকা

ভারতীয় রেলওয়ে ভারতে যাতায়াতের একটি প্রধান মাধ্যম। ট্রেনের কারণেই ভারত খুব দ্রুত উন্নতি করেছে। ট্রেনের কারণেই অনেক মানুষ একসঙ্গে অনেক দূরত্ব অতিক্রম করতে সক্ষম হয়। ট্রেনে করে ভ্রমণ করা সুবিধাজনক এবং আরামদায়ক হয়। বিভিন্ন গ্রাম ও শহরের মধ্যে ছড়িয়ে থাকা রেল লাইনের উপর দিয়ে চলা ট্রেন ভারত ও ভারতের মানুষদের জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ।

ভারতীয় রেল বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম রেলওয়ে নেটওয়ার্ক। ভারতে ১৯ শতকে প্রথম ট্রেনটি চালু হয়েছিল। অর্থাৎ ব্রিটিশ আমলের সময় থেকে। আজ ১৮৬ তম বর্ষ পূর্ণ হলো ভারতীয় রেলের। ভারতীয় রেলের এই নেটওয়ার্কটি প্রায় ১,১৫,০০০ কিমি এরিয়া জুড়ে বিস্তৃত রয়েছে এবং এই রেলওয়ে নেটওয়ার্কে প্রায় ৭৩৪৯ টি সেটেশন রয়েছে।

এই স্টেশন গুলি থেকে প্রায় ২০০০০ এর বেশি যাত্রীবাহী ট্রেন ও ৭০০০ এর
বেশি পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করে। তবে ভারতীয় রেলের অনেক ধরনের নিয়ম রয়েছে যা সমন্ধে মানুষ সঠিক ভাবে জানে না বা খোঁজ রাখে না ফলে মানুষকে যাত্রার সময় অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয়। আজ আমরা এই আর্টিকেলে ভারতীয় রেলের একটি নতুন নিয়মের বিষয় জানাবো এবং এই নিয়মের বিষয় যদি আপনাদের জ্ঞান না থাকে আপনাদের অবশ্যই অসুবিধার সম্মুখীন হতে হবে। আসুন জেনেনি কি এই নতুন নিয়ম।

রেল মন্ত্রণালয় থেকে খবর এসেছে যে এখন থেকে অতিরিক্ত পরিমানে লাগেজ বহন করা যাবে না। যদি কোনো যাত্রী নির্দিষ্ট পরিমানে বেশি লাগেজ বহন করতে চায় তবে তার জন্য যাত্রীকে অতিরিক্ত অর্থ দিতে হবে। কয়েক দশক ধরে রেলওয়ে পরিবহন ব্যবস্থা যাত্রীদের লাগেজের ব্যাপারে নম্র আচরণ করে এসেছে কিন্তু এখন সম্প্রতি একটি ঘোষণার মাধ্যমে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দিয়েছে যে নতুন লাগেজ বহনের নিয়ম কঠোরভাবে প্রয়োগ করা হবে।

রেল মন্ত্রণালয় এই বিষয় একটি টুইট করেছে এবং পরামর্শ দিয়েছে যে বেশি লাগেজ নিয়ে ট্রেনে চলাচল না করতে। মন্ত্রণালয় লিখেছে- “যাত্রার সময় যদি লাগেজের পরিমান অতিরিক্ত হয় তবে যাত্রার আনন্দ কমে অর্ধেক পরিমানে কমে যায়! তাই পরিমানের অতিরিক্ত লাগেজ নিয়ে যাত্রা করবেন না। আর যদি আপনার অতিরিক্ত লাগেজ থাকে তবে পার্সেল অফিসে যান এবং লাগেজ বুকিং করুন।”

নতুন নিয়ম অনুযায়ী স্লিপার ক্লাসে যাত্রা করা যাত্রীরা ৪০ কেজি পর্যন্ত লাগেজ বহন করতে পারবে কিন্তু তার বেশি লাগেজ থাকলে অতিরিক্ত অর্থ পেমেন্ট করতে হবে। আর যদি সেকেন্ড ক্লাসের যাত্রীরা ৩৫ কেজি পর্যন্ত লাগেজ বহন করতে হবে কিন্তু তার বেশি লাহেজ থাকলে অতিরিক্ত অর্থ দিতে লাগবে এবং এসি ফার্স্ট ক্লাসে যাত্রা করা যাত্রীরা ৭০ কেজি পর্যন্ত লাগেজ বহন করতে পারবে কন্তু তার বেশি হলে অতিরিক্ত অর্থ দিতে হবে।

রিপোর্ট থেকে জানা গেছে যদি কেউ লাগেজ বুকিং না করে অতিরিক্ত লাগেজ নিয়ে যাতায়াত করে তবে অতিরিক্ত লাগেজের জন্য সাধারণত যা পেমেন্ট করতে হতো, ধরা পড়লে তার ছয় গুন বেশি পেমেন্ট করতে হবে। উদাহরণস্বরূপ, যদি কেউ ৪০ কেজির অতিরিক্ত লাগেজ নিয়ে ৫০০ কিলোমিটার যাতায়াত করে তার জন্য বুকিং করলে মাত্র ১০৯ টাকা পেমেন্ট করতে হবে। কিন্তু যদি কেউ বুকিং না করে ধরা পড়ে যায় তবে তার ছয় গুন অর্থাৎ ৬৫৪ টাকা পেমেন্ট করতে হবে।

 

Related Articles

Back to top button