গতির দিক দিকে হার মানবে বুলেট ট্রেনও, খুব শীঘ্রই ভারতে আসতে চলেছে হাইপারলুপ ট্রেন

বর্তমান যুগে অল্প সময়ে দীর্ঘ দূরত্ব অতিক্রম করার জন্য বিমানকে পরিবহনের সর্বোত্তম মাধ্যম হিসাবে বিবেচনা করা হয়। যার কারণে শত শত মানুষ বিমানে যাতায়াত করে। তবে কয়েক বছর পর যদি আপনি ট্রেনে দিল্লি থেকে চণ্ডীগড়ের দূরত্বে মাত্র ১ ঘণ্টায় পৌঁছে যান তাহলে আপনার প্রতিক্রিয়া কেমন হবে। শীঘ্রই এমন একটি ট্রেন পরিষেবা ভারতে শুরু হতে চলেছে। যা কম সময়ে দীর্ঘ দূরত্ব অতিক্রম করতে সক্ষম হবে। এই ট্রেনটির নাম দেওয়া হয়েছে হাইপারলুপ (Hyperloop train), যা ঘণ্টায় ৩০০ কিলোমিটার বেগে চলে। বিদেশি কোম্পানিগুলি এই ট্রেনটিকে ভারতে আনার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

hyperloop train speed

হাইপারলুপ ট্রেন কি?

একদিকে, যেখানে ভারতীয় নাগরিকরা বুলেট ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করছেন, অন্যদিকে বিদেশী সংস্থাগুলি ভারতে হাইপারলুপ ট্রেন চালু করার জন্য উঠে পরে লেগেছে। হাইপারলুপ ট্রেনটি নতুন প্রযুক্তিতে সজ্জিত একটি পডে চালানো হবে। যা উচ্চ গতিতেও ঘর্ষণ তৈরি করে না। হাইপারলুপ প্রযুক্তিতে, স্তম্ভগুলির উপরে একটি স্বচ্ছ টিউব স্থাপন করা হয়।

যার ভিতরে একটি একক বগি সহ একটি দীর্ঘ ট্রেন বাতাসে ভাসতে থাকে। এই ট্রেনের সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় ১,১০০ থেকে ১,২০০ কিলোমিটার হতে পারে, যা উচ্চ গতির দিক থেকে বুলেট ট্রেনের চেয়েও দ্রুত। নীতি আয়োগের সদস্য ভি.কে. সারস্বত একটি বিবৃতিতে বলেছিলেন যে কিছু বিদেশী কোম্পানি ভারতে হাইপারলুপ ট্রেন আনতে আগ্রহ দেখাচ্ছে।

hyperloop train

যার জন্য প্রাথমিক পর্যায়ে আলোচনা চলছে। এমন পরিস্থিতিতে, হাইপারলুপ ভারতের (India) ট্রেনটি মুম্বাই এবং পুনের মধ্যে চালানো যেতে পারে। যাতে দুই শহরের মধ্যে দূরত্ব মাত্র ২০ থেকে ২৫ মিনিটে কভার করা যায় এই হাইস্পীড (Hyperloop train speed) ট্রেনের দ্বারা।

Related Articles

Back to top button