এক সময় করতেন ডেলিভারি বয়ের কাজ! আজ নিজের দমে তৈরি করেছেন কোটি টাকার কম্পানি, অনুপ্রেরণা যোগাবে সুশীলের কাহিনী

চেষ্টা করলে অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখানো যায়। শুধু নিজের কাজের প্রতি সৎ এবং পরিশ্রমী হতে হয়। তেমনি এক উদাহরণ হলেন দক্ষিণ দিল্লির সুনীল বশিষ্ঠ। তিনি হলেন Flying Cakeএর প্রতিষ্ঠাতা। তিনি আজ হাজার হাজার মানুষের অনুপ্রেরণার গল্প হয়ে দাঁড়িয়েছেন। অথচ একদিন এমন গেছে, মাত্র ২০০ টাকা দিয়ে তাকে তাঁর খরচা চালাতে হয়েছে। আজ তিনি একজন সফল ব্যবসায়ী।

একসময়ে সুনীলের পরিবারের আর্থিক সমস্যা থাকার কারণবশত তাঁকে পড়াশুনা বন্ধ করে দিতে হয়। তিনি দশম শ্রেণীর মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে পারেননি আর্থিক কারণে। এরপর দুশো টাকার বেতনে পার্ট টাইম হিসেবে কাজ শুরু করেন দুধ বণ্টনকারী হিসাবে। এরপর তিনি পিৎসা ডেলিভারি বয়ের কাজ নেন। তবে এখানেও তার আর্থিক সমস্যা খুব একটা কমেনি।

তিনি কুরিয়ার কোম্পানি চাকরিও পেয়েছিলেন। কিন্তু ভাগ্যের এমনই পরিহার সেই চাকরিটাও তিনি বেশিদিন ধরে রাখতে পারেননি। তবু তিনি হার মানেননি। কাজ করার পাশাপাশি নিজের পড়াশোনা চালিয়ে গিয়েছেন। দিল্লির সরকারি বিদ্যালয় থেকে তিনি উচ্চমাধ্যমিক কমপ্লিট করেন। এরপর তিনি কলেজে ভর্তি হন। তিনি দিল্লির শহীদ ভগৎ সিং কলেজ থেকে গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করেন।

কুরিয়ার বয়ের জবটি চলে যাওয়ার পর, তিনি হার না মেনে, খুব সাহসের সাথে একটি পদক্ষেপ নেন। বন্ধুদের কাছ থেকে ৬ হাজার টাকা ধার নিয়ে Flying Cakeএর কোম্পানি শুরু করেছিলেন। আসতে আসতে তাঁর ব্যবসা দিনের পর দিন উন্নতি হতে লাগলো। আজ বছরে তাঁর ৮ কোটি টাকা মুনাফা হয়। আজকের দিনে দাঁড়িয়ে মানুষের অন্যতম পছন্দের খাবার হল Flying Cakeএর পিৎজা।

Related Articles

Back to top button