সাড়ে ৬ কোটি বছরের পুরানো ডিমে পাওয়া গেল ডাইনোসরের বাচ্চা, বৈজ্ঞানিক মহলে হৈচৈ রব

আজ থেকে বহু কোটি বছর আগে অস্তিত্ব ছিল বিশালাকার ডাইনোসরের। এ নিয়ে অনেক গল্প এবং অনেক বৈজ্ঞানিক তথ্যও শোনা যায়। সম্প্রতি চীনের জিয়াংসি প্রদেশে বৈজ্ঞানিকরা বড়ো সফলতা পেয়েছেন। দক্ষিন চিনের জিয়াংসি প্রদেশে একটি ডাইনোসরের ডিমের জীবাশ্ম খুঁজে পাওয়া গেছে। সবচেয়ে মজার বিষয় হল ডিমের ভিতরে একটি সংরক্ষিত ডাইনোসরের ভ্রূণও দেখা গিয়েছে।

এটি সংরক্ষিত ডাইনোসরের সম্পূর্ণ ভ্রূণ, যা ১০.৬ ইঞ্চি লম্বা। এই ভ্রূণের নাম দেওয়া হয়েছে বেবি ইংলিয়াং। এর বয়স প্রায় ৬৬-৭২ মিলিয়ন অর্থাৎ আজ থেকে প্রায় ৭০ মিলিয়ন বছর পুরানো বলে মনে করা হচ্ছে। এ সম্পর্কে বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জীবাশ্মবিদরা বলেছেন যে বেবি ইংলিয়াং ওভিরাপ্টোরোসর প্রজাতির অন্তর্গত। ওভিরাপ্টোরোসর ডাইনোসরকে থেরোপড ডাইনোসরও বলা হত।

তাদের কোন দাঁত ছিল না এবং শুধুমাত্র চঞ্চু ছিল। ওভিরাপ্টোরোসর ছিল এশিয়া এবং উত্তর আমেরিকার পালকযুক্ত ডাইনোসর। তাদের ঠোঁট এবং শরীরের আকার বৈচিত্র্যময়। রিপোর্ট অনুযায়ী, বেবি ইংলিয়াং এর এই জীবাশ্ম থেকে বোঝা যায় কয়েকদিনের মধ্যে ডিম ফুটে বেরিয়ে আসতে চলেছে। তার মাথা এবং শরীরের অংশ নিচে দিকে এবং তার পিঠের আকৃতি বাঁকানো।

ভ্রূণেরও পা ও মাথা তৈরি হয়ে গিয়েছিল। কানাডার ক্যালগারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ডার্লা জেলেনিটস্কি বলেন, ডিমের ভিতরে পাওয়া ডাইনোসরের হাড়গুলো ছোট এবং খুবই নরম। তিনি বলেন এমন একটি জীবাশ্ম খুঁজে পাওয়া অসম্ভব এবং আমরা ভাগ্যবান যে, আমাদের কাছে এটি আছে। যে শিশু ডাইনোসরের জীবাশ্ম পাওয়া গেছে। এভাবে জীবাশ্ম সংরক্ষণ করা অসম্ভব বলেই মনে করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার, আইসায়েন্স ম্যাগাজিনে এই শিশু ডাইনোসর সম্পর্কে একটি প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়েছে, যা সারা বিশ্বে বিস্ময় সৃষ্টি করেছে। এই গবেষণার সহ-লেখক জেলেনিটস্কি বলেছেন, ‘এটি একটি বিস্ময়কর নমুনা। আমি ডাইনোসরের ডিম নিয়ে কাজ করছি। কিন্তু এখনো এর মত কিছু দেখেনি’। প্রফেসর জেলেনিটস্কি বলেন যে, ‘তখন ডাইনোসরের ডিমের ভিতরে কী ঘটেছিল সে সম্পর্কে খুব কমই জানা যাচ্ছে। ”

প্রফেসর আরো বলেন, “বাচ্চা ডাইনোসরদের শরীরে খুব কম হাড় থাকে এবং এখানে দেখা যাচ্ছে, জন্মের ঠিক আগের মুহুর্তে এই অবস্থান এবং ডিমের ভিতরে এটি ঠিক এমনভাবে পাওয়া যায় যেন এটি সম্পূর্ণভাবে সংরক্ষিত ছিল।” সিএনএন রিপোর্ট অনুযায়ী, ডাইনোসরের ডিমটি প্রায় ১৭ সেমি (৭ ইঞ্চি) লম্বা এবং বাচ্চা ডাইনোসরটি মাথা থেকে লেজ পর্যন্ত ২৭ সেমি (১১ ইঞ্চি) এটি দীর্ঘ। গবেষকরা বিশ্বাস করেন যে এটি যদি প্রাপ্তবয়স্ক হিসাবে বেঁচে থাকত তবে এর দৈর্ঘ্য প্রায় ২ থেকে ৩ মিটার দীর্ঘ হতে পারত।

Related Articles

Back to top button