লাখ টাকার চাকরি ছেড়ে ইঞ্জিনিয়ার শুরু করেছেন বাড়িতে এই চাষ, বার্ষিক আয় কোটি কোটি টাকা

টাকা রোজগার করতে গেলে প্রথমেই দরকার সুস্থ জীবন যাপন। কোন মানুষের পক্ষে কাজ করা সম্ভব নয় যদি সে সুস্থ না থাকে। আজ এমনি একজন ব্যক্তি দেবেশ প্যাটেল। তিনি মানুষের স্বার্থে লাখ টাকার চাকরি ছেড়ে ব্যবসা শুরু করেছিলেন, যাতে সাধারণ নাগরিক সবাই সুস্থ ভাবে থাকতে পারে।

গুজরাটের আনন্দ জেলার বরিয়ারি গ্রামের চাষী পরিবারের ছেলে দেবেশ। কৃষি পরিবারের থেকে বড় হওয়ার জন্য তিনি চাষবাসের ব্যাপারে অনেক কিছুই জানতেন। তিনি ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করে, শহরে বিশাল অংকের চাকরি পেয়েছিলেন। কিন্তু তার মনে হতে থাকে আজকাল কম বেশি মানুষ শারীরিক ভাবে ফিট নেই।

এরপর তিনি চাকরি ছেড়ে গুজরাটে ফিরে আসেন। অনেক ভাবনা চিন্তা করে তিনি জৈবিক চাষ শুরু করেন। তিনি তিনি জৈবিক চাষের মাধ্যমে বিভিন্ন সবজি, হলুদ, আদা, অশ্বগন্ধা এবং লেবু প্রভৃতি চাষ করেন।

শুধু জৈবিক চাষ করেই তিনি থেমে থাকেননি, তিনি হলুদ থেকে ক্যাপসুলও প্রস্তুত করেছে। এই ক্যাপসুল মানুষের রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়ায়। এছাড়াও জৈবিক চাষের মাধ্যমে উৎপাদিত সবজিও রোগপ্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়াই মানুষের শরীরে।

দেবেশের এই হলুদ ক্যাপসুল এখন গুজরাটে সীমাবদ্ধ থাকলেও। ভবিষ্যতে পুরো দেশে ছড়িয়ে পড়বে এটাই আশা করা যায়। এই ক্যাপসুল বানানোর জন্য দেশের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীদের পরামর্শ নিয়েছিলেন তিনি। এই ক্যাপসুল দেশে অতটা প্রচার না হলেও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে এই ক্যাপসুলের জনপ্রিয়তা ইতিমধ্যেই হয়েছে। এই ক্যাপসুল থেকে আয় হয় ১.২৫ কোটি টাকা। আজ দেবেশ প্যাটেল সফল ব্যাবসায়ীও একজন।

Related Articles

Back to top button