এবার সমুদ্রের নীচ দিয়ে ছুটবে ভারতের প্রথম বুলেট ট্রেন, গভীরতা জানলে চমকে যাবেন আপনিও

সমুদ্রের নীচ দিয়ে ছুটবে ভারতের প্রথম বুলেট ট্রেন

ভারতের পরিবহন ব্যাবস্থা উন্নত থেকে উন্নততর হয়ে উঠছে। সেই উন্নয়নের হাত ধরে দেশে চালু হবে প্রথম বুলেট ট্রেন(Bullet Train)। গত ২০১৭ সালে ভারতের প্রথম বুলেট ট্রেন প্রকল্পের শিলান্যাস করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি(Narendra Modi) ও জাপানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী প্রয়াত শিনজো (Sinzo Abhe) আবে। গুজরাটের সবরমতি স্টেশন থেকে এই প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়। মুম্বাই (Mumbai) থেকে আহমেদাবাদ (Ahmedabad) পর্যন্ত প্রথম বুলেট ট্রেন পরিষেবা চালু করা হবে। এর জন্য কাজ শুরু হয়ে গেছে। মিডিয়া সূত্রে জানা যাচ্ছে, এই বুলেট ট্রেনটি সমুদ্রের নীচ দিয়ে চলবে, যা প্রায় ৭ কিলোমিটার দীর্ঘ টানেল বিশিষ্ট। আজকের প্রতিবেদনে আপনাদের এ নিয়ে বিস্তারিত তথ্য দেব।

fast express train

তথ্যানুসারে, ভারতের প্রথম বুলেট ট্রেন চলাচলের জন্য ২১ কিলোমিটার দীর্ঘ টানেল তৈরির পরিকল্পনা করা হয়েছে। যার মধ্যে ৭ কিলোমিটার টানেল থাকবে সমুদ্রের নীচে। এটির দেশের প্রথম আন্ডার সী টানেল হতে চলেছে। ২১ কিলোমিটারের দীর্ঘ টানেল বানানোর জন্য টানেল বোরিং মেশিন (TBM) এবং নিউ অস্ট্রিয়ান টানেলিং পদ্ধতি (NATM) ব্যবহার করা হবে। এ জন্য ন্যাশনাল হাই স্পীড রেল করপোরেশন লিমিটেড (National High Speed Rail Corporation Limited) একটি টেন্ডার পাস করেছে।

দেশের প্রথম আন্ডারসী টানেল, ভূপৃষ্ঠ থেকে যার গভীরতা হবে ২৫-৬৫ মিটার। যার মধ্যে পারসিক পাহাড়ের কাছ থেকে এই টানেলের গভীরতম পয়েন্টি নির্মাণ করা হবে, ভূপৃষ্ঠ থেকে যার গভীরতা ১১৪ মিটার। প্রায় ২১ কিলোমিটার বিশিষ্ট লম্বা টানেল তৈরি করা হবে। যার মধ্যে ১৬ কিলোমিটার টানেল তৈরিতে ব্যবহৃত হবে ১৩.১ মিটার ব্যাস বিশিষ্ট তিনটি টানেল বোরিং মেশিন। অপরদিকে বাকি ৫ কিলোমিটার টানেল তৈরিতে ব্যাবহার করা হবে নতুন অস্ট্রিয়ান টানেলিং পদ্ধতি।

bullet

ভারতের প্রথম উচ্চ গতির রেল লাইন প্রকল্পের কাজ ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। দীর্ঘ ৫০৮ কিলোমিটারের এই লাইন নির্মাণ পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছে ন্যাশনাল হাই স্পিড রেল কর্পোরশন। ৫০৮ কিলোমিটারের মধ্যে প্রায় ৩৫২ কিমি রেল লাইন গুজরাটের নয়টি জেলা ও মহারাষ্ট্রের তিনটি জেলার উপর দিয়ে যাবে। ইতিমধ্যে এদের ৮ টি জেলায় কাজ শুরু হয়ে গেছে। এতে মোট ১২ টি স্টেশন তৈরি করা হবে। এই প্রকল্পের জন্য মোট ১.০৮ লক্ষ কোটি টাকা খরচ হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। প্রসঙ্গত, ভারতের প্রথম বুলেট ট্রেনের গতি হবে সর্বোচ্চ ৩২০ কিলোমিটার/ঘন্টায়। এর ফলে মাত্র দুই ঘন্টায় মুম্বাই থেকে আহমেদাবাদ পৌঁছে যাওয়া যাবে।

bullet train

Related Articles

Back to top button