দীপাবলির পর হটাৎ উঠলো বয়কট ক্যাডবেরির ট্রেন্ড, এই কারণেই ক্ষেপলো জনতা

দীপাবলির পর হটাৎ উঠলো বয়কট ক্যাডবেরির ট্রেন্ড

চকোলেট (Chocolate) #BoycottCadbury কিছু দিন থেকে টুইটারে শীর্ষ প্রবণতায় রয়েছে এটি। লোকেরা টুইটের মধ্যে একই হ্যাশট্যাগ দিয়ে ইন্টারনেটে তাদের প্রতিক্রিয়া ভাগ করছে। দীপাবলি হোক বা ভাইফোঁটা, আমরা আমাদের বন্ধুদের এবং আত্মীয়দের উপহার হিসাবে শুভেচ্ছা জানাই। এর সাথে আমরা তাদের চকলেট (Chocolate) এবং মিষ্টি উপহার দিই। চকোলেটের (Chocolate) নাম শুনলেই সবার আগে যে নামটি আসে তা হল ক্যাডবেরি।

Chocolate

যার সেলিব্রেশন বক্স দীপাবলিতে প্রচুর আদান-প্রদান করা হয়ে থাকে। তবে এমন অনেক ঘটনা ঘটে যে কোম্পানির কিছু জিনিস ব্যবহারকারীরা পছন্দ করেন না। তারা সেই কোম্পানির পন্যের বয়কটের দাবি তুলতে শুরু করেন। তেমনই এক ঘটনা সামনে এসছে এই। যেখানে লোকেরা #BoycottCadbury দাবি করছে তাও দীপাবলির পরে।

যদিও এটি প্রথমবার নয় যে ক্যাডবেরি ব্র্যান্ড হতে চলেছে এই পদ্ধতিতে মানুষের মধ্যে সমালোচনার জন্ম হচ্ছে। তবে এবারের বিষয়টি একটু ভিন্ন কারণ এবার ব্র্যান্ডটি তার পণ্যের কারণে সমালোচনার শিকার নয় বরং বিজ্ঞাপনের কারণে। আসলে, দীপাবলিতে এর বিক্রি বাড়ানোর জন্য একটি বিজ্ঞাপন করা হয়েছিল। যেটিতে দেখা যায় একজন বৃদ্ধ লোক একটি প্রদীপ বিক্রি করছেন তার নাম দামোদর এবং পিএম মোদীর বাবার নামও দামোদর।

এই কারণেই এই বিজ্ঞাপনটি সমালোচিত হচ্ছে এবং #BoycottCadbury টুইটারে ট্রেন্ড করছে। এই ক্যাডবেরির বিজ্ঞাপনটি শেয়ার করে, বিজেপি নেতা ডাঃ প্রাচী সাধ্বী টুইট করেছেন যে এই ধরণের বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী মোদীর বাবার অপমান করা হচ্ছে। মানুষের মধ্যে একটি বার্তা দেওয়া হচ্ছে যে চাইওয়ালা কা বাপ দিয়াওয়ালা। বিজেপি নেতার এই টুইটের পরেই এই বিষয়টি ভাইরাল হয়ে যায়। এখন যেহেতু শত শত মানুষ এটি রিটুইট করেছে, তারা #BoycottCadbury দাবি করছে।

Chocolate

Related Articles

Back to top button