বয়সের সাথে হয়ে গিয়েছেন টাকলা! নকল চুল লাগিয়ে বলিউডে নিজেদের স্টারডম বজায় রেখেছেন এই তারকারা

বলিউডে তারকারা তাঁদের লুকস নিয়ে খুবই সচেতন। তাঁরা চাই তাঁরা যেন সারা জীবন তরুণই থাকে। অভিনেতারা যতটা সম্ভব নিজেদের রূপের জৌলুস ধরে রাখতে চেষ্টা করেন। আর এর জন্য যদি সার্জারির দরকার পড়ে, তাহলেও পিছু পা হননা এরা। সেরকমই বলিউড ইন্ডাস্ট্রির অনেক তারকা আছেন যাদের একসময় চুলের পড়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা দিয়েছিলো কিন্তু চুল বাঁচতে তাঁরা জলের মত খরচ করেছেন। টাক পড়া থেকে নিজেদের বাঁচিয়েছিলেন। আসুন জেনে নিন সেই সব বলিউড তারকার নাম।

সালমান খান

বলিউডের ভাইজান অর্থাৎ অভিনেতা সালমান খানের একসময় টাক পড়তে শুরু করে এবং তাঁর চুলের অনেকটাই ঝরে গিয়েছিল। তাই নিজের চুল এবং ইমেজ বাঁচাতে সালমান হেয়ার ট্রান্সপ্লান্টের আশ্রয় নিয়েছিলেন।

অক্ষয় কুমার

বলিউডের ফিটনেস আইকন অক্ষয় কুমারকেও টাকের সমস্যায় ভুগতে হয়েছিল। চুল ঝরে পড়ার সময় প্রথম দিকে অক্ষয় নকল চুল ব্যবহার করতেন। কিন্তু পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছিলো। তাই দ্বিতীয় কোনো উপায় খুঁজে না পেয়ে হেয়ার ট্রান্সপ্লান্ট করিয়ে নিয়েছিলেন খিলাড়ি কুমার।

রণবীর কাপুর

সম্প্রতি, অভিনেত্রী আলিয়া ভাটের সঙ্গে নতুনজীবন শুরু করেছেন অভিনেতা রণবীর কাপুর। তবে জানিয়ে রাখি, খুব অল্প বয়সেই চুল পড়া শুরু হয়েছিল রনবীরের। যার জন্য ২০০৭ সালে তিনি চুলের অস্ত্রোপচার করিয়েছিলেন।

অমিতাভ বচ্চন

নব্বই দশকের শেষ দিকে অমিতাভ বচ্চন চুল পড়ার সমস্যায় পড়েছিলেন। প্রায় পুরোই টাক পড়ে গিয়েছিল তাঁর। তাই টাক লুকাতে বহুবার নকল চুলের আশ্রয় নিয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন এবং শেষমেশ তিনিও সার্জারি করে নেন।

সানি দেওল

জনপ্রিয় বলিউড অভিনেতা সানি দেওয়াল একসময় নিজের চুল হারিয়ে ফেলেছিলেন। তাই তিনি চুল প্রতিস্থাপন সার্জারি করেছিলেন।

জ্যাকি শ্রফ

টাকের সমস্যায় দীর্ঘদিন ভুগেছিলেন প্রবীণ অভিনেতা জ্যাকি শ্রফ। ক্যরিয়ার জীবনে একটাসময় বিভিন্ন সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছিলো তাঁকে। তাই তিনি চুল প্রতিস্থাপন করিয়েছিলেন।

কপিল শর্মা

জনপ্রিয় কৌতুক শিল্পি কপিল শর্মার এখনকার চেহারা দেখে না বোঝা গেলেও তাঁর একসময় পুরো মাথায় টাক পড়ে গিয়েছিল। ক্যরিয়ার এবং মাথার টাক বাঁচাতে গোপনে হেয়ার ট্রান্সপ্লান্ট করিয়েছিলেন কপিল শর্মা।

রজনীকান্ত

দক্ষিনী ইন্ডাস্ট্রির সুপার স্টার রজনী কান্ত বয়সের সাথে নিজের চুল হারিয়ে ফেলেছিলেন। তবে অভিনেতা কোনোকালেই টাক নিয়ে বিশেষ চিন্তা করেননি তাই সার্জারি না করে শুধুমাত্র উইগ ব্যাবহার করেই তিনি তাঁর সমস্ত ছবিতে অভিনয় করেছেন।

গোবিন্দ

একসময় অনেক দিন বড় পর্দা থেকে দূরে সরে ছিলেন অভিনেতা গোবিন্দ। জানা যায় তিনি সেসময় তাঁর টাকজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন।এছাড়া বহুবার ক্যামেরার সামনে নকল চুলের মাধ্যমে টাক লুকিয়েছেন গোবিন্দ। অবশেষে তিনিও হেয়ার ট্রান্সপ্লান্ট করিয়েনেন।

সঞ্জয় দত্ত

বলিউড অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত তাঁর ক্যারিয়ারে থাকাকালীন টাক পড়ে যাওয়ার জন্য চুল প্রতিস্থাপন করেছিলেন। শোনা যায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তাঁর চুল প্রতিস্থাপনের প্রক্রিয়াটি হয়েছিল।

Related Articles

Back to top button