“মুরগি আগে না ডিম আগে”, দাদাগিরির মঞ্চে ধাঁধাঁর সঠিক জবাব বলে দিলেন সৌরভ…

‘ডিম আগে, না মুরগী আগে’-বহু বিতর্কিত এই প্রশ্নটির মুখে কোন না কোন সময় পড়তে হয়েছে
কমবেশি সকলকেই। আর প্রতিবারই এই প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে হিমশিম খেয়েছেন উত্তরদাতা। সঠিক জবাব আজ পর্যন্ত কেউ দিতে পারেননি। কারণ পৃথিবীতে মুরগি আগে না এলে ডিম কোথা থেকে আসবে, আর ডিম না এলে মুরগিরই বা জন্ম হবে কোথা থেকে? আর সেই জন্যই প্রশ্নটি রহস্যই থেকে গেছে।

তবে এবার ডিম আর মুরগির মধ্যেকার এই জটিল রহস্য ভেদ করলেন সবার প্রিয় দাদা, ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক এবং দাদাগিরির সঞ্চালক সৌরভ গাঙ্গুলী (Sourav Ganguly). সম্প্রতি ‘দাদাগিরি’র একটা পুরনো এপিসোড সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হয়েছে। এপিসোডটি একটি সেলিব্রিটি এপিসোড ছিলো। অতিথি হিসাবে সেটে হাজির ছিলেন বিশ্বনাথ বসু, জয়জিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় ও সুদীপা চক্রবর্তী প্রমূখ।

আর এই পর্বেরই গুগলি রাউন্ডে, বিশ্বনাথকে দাদা প্রশ্ন করে বসেন, ‘ডিম আগে না মুরগি’? অনেক ভাবনাচিন্তার পরে বিশ্বনাথ উত্তরে ডিম বলেছিলেন। কারণ তিনি ভেবেছিলেন, প্রশ্নে মুরগির আগে যেহেতু ডিম লেখা আছে, তাই সেটাই হবে সঠিক জবাব। কিন্তু তার উত্তর ভুল প্রমাণিত হয়।

এরপর এই প্রশ্নের উত্তর বিশ্বনাথকে বুঝিয়ে বলেন ‘দাদাগিরির’ হোস্ট সৌরভ। তিনি বলেন “উত্তরটা হল ‘ডিম’। এর কারণ প্রশ্নে কোথাও উল্লেখ নেই মুরগির ডিমের কথাই বলা হচ্ছে। পাশাপাশি সৃষ্টির শুরুতে ডাইনাসোরসের ডিম পাওয়া গিয়েছিল। আর ওটাই ছিল পৃথিবীর প্রথম প্রাণী। তাই উত্তরটা ‘ডিম’ই হবে।”

তবে আপনাদের জানিয়ে রাখি, ডিম আর মুরগির এই জটিল রহস্য বহু প্রাচীন। এই নিয়ে আগেও বিস্তর গবেষণা হয়েছে, আর এখনো হচ্ছে। সেরকমই ইংল্যান্ডের শেফিল্ড এবং ওয়ারউইক বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন গবেষক দীর্ঘদিন ধরেই এই বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করছিলেন।তাঁদের মতে মুরগির ডিমের খোলায় অভ্যক্লেইদিন (Ovocleidin) নামক বিশেষ প্রোটিন থাকে,এটি ছাড়া ডিমের খোলা তৈরি হওয়া কোনোভাবেই সম্ভব নয়। আর এই প্রোটিনটি শুধুমাত্র মুরগির জরায়ুতেই তৈরি হয়। এখন মুরগি যদি আগে না আসত, তাহলে এই বিশেষ প্রোটিনটিও তৈরি হত না। ফলে আসত না ডিমও।

Related Articles

Back to top button