পৃথিবীর বৃহত্তম ইন্টারলিংক সিস্টেমের কেন্দ্র হবে বাংলার ব্যান্ডেল স্টেশন, বিরাট সুবিধা পাবেন রেলযাত্রীরা

৭২ ঘন্টার জন্য ব্যান্ডেল সেটেশন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। এই খবর পেয়ে বেড়ে গেছে যাত্রীদের মধ্যে উত্তেজনা। রিপোর্ট থেকে জানা গেছে ব্যান্ডেল স্টেশনে হতে চলেছে কিছু পরিবর্তন। এবার নাকি চালু হবে দেশের বৃহৎ ইলেকট্রিক রুট রেল ইন্টারলকিং সিস্টেম। আর এই কারণেই বন্ধ থাকছে স্টেশনটি। এতদিন ব্রিটিশ ইন্টারলকিং সিস্টেম ব্যবহার করে কাজ হলো স্টেশনে কিন্তু এখন জার্মান প্রযুক্তিতে তৈরি ইলেকট্রনিক ইন্টারলকিং সিস্টেমে কাজ হবে বলে জানা গেছে।

যেইকোম্পানি এই সিস্টেমটি তৈরি করেছে তারা জানিয়েছে বিশ্বে প্রথমবার এতো বড় রুটস রেল ইলেকট্রনিক ইন্টারলকিং বসছে হুগলির ব্যান্ডেলে। এর আগে খড়গপুর সবচেয়ে বড় ইন্টারলকিং সিস্টেম ছিল আর তার ধারণ ক্ষমতা ছিল ৮০০। কিন্তু ব্যান্ডেল চালু হওয়া সিস্টেমের ধারণ ক্ষমতা ১০০০ এর বেশি। এই সিস্টেমটি শুধু ভারত নয় গোটা বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ ইন্টারলকিং সিস্টেম বলে দাবি করছে কোম্পানি।

রিপোর্ট থেকে জানা গেছে এই সিস্টেম বসলে অনেক বেশি দ্রুত হবে ট্রেনের পরিসেবা। এছাড়া কোনো জংশনে ঢোকার আগে যেমন ট্রেনকে অনেক্ষন সিগন্যালে দাঁড়াতে হতো সেই সব পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হবে না এবং ট্রেন অনেক তাড়াতাড়ি নিজের গন্তব্যে পৌঁছবে।এছাড়া এই প্রযুক্তিদের অধীনে যাত্রীদের সুরক্ষার উপর বিশেষ নজর দেওয়া হয়েছে।

আগে ব্রিটিশ ইন্টারলকিং সিস্টেমে টেলিফোনের মাধ্যমে কাজ হতো কিন্তু এখনের সিস্টেমে কাজ হবে কম্পিউটারের মাধ্যমে। যার ফলে ট্রেনের রুট গুলি মনিটরে দেখা যাবে। আর রেল কর্তৃপক্ষের কাজের সুবিধাও হবে। নতুন ইন্টারলকিং সিস্টেম বসানোর জন্য তিনদিন সময় নিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। এই তিন দিনের মধ্যে পরীক্ষা নিরীক্ষা সমেত সমস্ত কাজ শেষ করে ফেলবে তারা।

 

Related Articles

Back to top button