পার্সোনালিটির দিক থেকে একাধিক বলি অভিনেতাকে পিছনে ফেলে দেবে অনিল পুত্র হর্ষবর্ধন, দেখুন ছবি

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় এবং প্রতিভাবান তারকা হলেন অনিল কাপুর (Anil Kapoor). অভিনেতা হওয়ার পাশাপাশি তিনি একজন সফল চলচ্চিত্র প্রযোজক। অনিল কাপুরকে মূলত হিন্দি চলচ্চিত্রে দেখা গেলেও, বহু আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র এবং টেলিভিশন সিরিজেও অভিনয় করেছেন তিনি। দীর্ঘ চল্লিশ বছরের ফিল্ম ক্যরিয়ারে শতাধিক ফিল্মে তিনি অভিনয় করেছেন এবং বর্তমানেও কাজ করে চলেছেন। অভিনেতার বয়স ষাটের গন্ডি পেরোলেও তিনি আজও বেশ ফিট এবং সুদর্শন। অনিল কাপুরের তিন সন্তান রয়েছেন। তাঁদের মধ্যে সোনাম কাপুর ইতিমধ্যেই বলিউডের একজন বড় সেলিব্রিটি এবং ছেলে হর্ষবর্ধনও বলিউড এর সাথে যুক্ত হয়েছেন। সম্প্রতি একটি নতুন ছবি রিলিজ হয়েছে যেখানে বাবা অনিল কাপুরের সঙ্গেই দেখা গিয়েছে হর্ষবর্ধনকে।

বাবা ও ছেলের জুটিকে জনপ্রিয় ওটিটি প্লাটফর্ম নেটফ্লিক্স (Netflix)-এর নিও-ওয়েস্টার্ন ফিল্ম ‘থর'(Thar)-এ দেখা গিয়েছে। রাজ সিং চৌধুরীর লেখা ও পরিচালনায় তৈরী হয়েছে এই ছবি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবির ফার্স্ট লুকও প্রকাশিত হয়েছে যা দর্শকদের ভীষণ পছন্দ হয়েছে। এটা হর্ষবর্ধনের দ্বিতীয় ছবি যেখানে তিনি বাবার সাথে স্ক্রিন শেয়ার করেছেন। এর আগে ‘একে বনাম একে’-তে হর্ষ তাঁর বাবা অনিল কাপুরের সাথে স্ক্রিন শেয়ার করেছিলেন। যেখানে তাঁকে ক্যামিও রোল করতে দেখা গিয়েছিল।

জানা গেছে ‘থর’ সিনেমাটির জন্য হর্ষবর্ধন যতটা না উৎসাহিত ছিল তার থেকেও বেশি উৎসাহিত ছিলেন বাবা অনিল কাপুর। একটি মিডিয়া সাক্ষাত্কারে, অনিল কাপুর বলেছিলেন যে, হর্ষবর্ধন যখন তাকে তাঁর সাথে কাজ করতে বলেছিলেন, তখন সাথে সাথেই তিনি রাজি হয়ে যান। ছবিতে দুজনেই ভীষণ দক্ষতার সাথে অভিনয় করেছেন। এই ছবিতে হর্ষবর্ধনের বিপরীতে দেখা গেছে অভিনেত্রী ফতিমা সানা শেখকে যিনি চেতনার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। এছাড়াও মুখ্য ভূমিকায় রয়েছেন সতীশ কৌশিক, মুক্তি মোহন প্রমুখরা। ছবিতে বাবা ও ছেলের ডুয়েট পারফর্ম্যান্সে উচ্ছ্বসিত দর্শকরা। ছবিটি গত মাসের ৬ তারিখে মুক্তি পেয়েছে এবং ভীষণ প্রশংসা পাচ্ছে।

ছবিটি ১৯৮০-এর দশকের প্রেক্ষাপটের উপর ভিত্তি করে নির্মিত একটি প্রতিশোধমূলক চলচ্চিত্র। ছবিতে হর্ষবর্ধন সিদ্ধার্থ কুমার নামের একজন রহস্যময় এন্টিক ডিলারের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। যিনি পাকিস্তান সীমান্তের কাছে থর মরুভূমিতে অবস্থিত একটি প্রত্যন্ত রাজস্থানী গ্রামের মধ্য দিয়ে ভ্রমণ করেন। পরবর্তীতে সেই গ্রামটিতে হিংসাত্মক হত্যাকাণ্ড শুরু হয়। এরপর গ্রামের ইন্সপেক্টর,সুরেখা সিং অর্থাৎ অনিল কাপুর এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত শুরু করেন। পরে সিদ্ধার্থও ইন্সপেক্টরকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন এবং সত্যি উন্মোচনের চেষ্টা চালাতে থাকেন। তবে এর পর কি ঘটেছিল তা জানতে হলে অবশ্যই আপনাদের ছবিটি দেখতে হবে।

Related Articles

Back to top button