আমির খানের লাল সিংহ চাড্ডা বয়কটের ডাক, কাশ্মীর ফাইলসের উপর মন্তব্য করে ফাঁসলেন অভিনেতা

বলিউড ইন্ডাস্ট্রি ব্যাপকভাবে ব্যর্থতার পাশাপাশি বলি তারকারাও বিশেষ বিশেষ কিছু কারণে মানুষের কাছে অপছন্দের কারণ হয়ে উঠেছে। ব্যবহারকারীরা, এমনই কিছু বলিউড ছবিকে নিয়ে তাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। বেশ কয়েকদিন ধরেই আমির খানের আসন্ন ছবি ‘লাল সিং চাড্ডা’ সোশ্যাল মিডিয়া তুমুল আলোচনায়। তার ছবিকে ঘিরে তৈরি হয়েছে নানান সংশয়। এদিকে নেটিজেনরা সোশ্যাল মিডিয়ায় আসন্ন ছবি ‘লাল সিং চাড্ডার’ বয়কটের তীব্র ডাক তুলেছে। যেখানে ছবিটির মূল চরিত্রে অভিনয় করছেন আমির খান ও তার বিপরীতে অভিনয় করছেন করিনা কাপুর। প্রতিবাদকারীরা ছবিটি বয়কটের কারণ হিসেবে দেখাচ্ছে তাদের পুরনো বক্তব্য ও কর্মকান্ড।

আসলে, আমির অভিনীত ‘লাল সিং চাড্ডা’ ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়ার আগেই বয়কটের ডাক উঠেছে। কারণ তিনি, মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘দ্যা কাশ্মীরী ফাইলকে’ নিয়ে দিয়েছিলেন বড় বায়ান। ‘দ্যা কাশ্মীরি ফাইল’ ছবিটি সারা দেশে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। ছবিটি কম বাজেটে তৈরি হলেও বর্তমানে 200 কোটি টাকার ওপর রান করছে। ছবিটি দেখার জন্য এখনও মানুষ box-office পৌঁছাচ্ছে। ছবিটির কাহিনীতে দেখানো হয়েছে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের উপর অত্যাচার। ছবিটিকে নিয়ে অনেকেই অনেক প্রশংসা করেছেন। তবে ছবিটিকে নিয়ে বলি অভিনেতা আমির খান একটি মন্তব্য করেছিলেন, যেখানে তিনি বলেছেন এই ছবিটি সকল হিন্দুস্থানীদের দেখা উচিত। অবশ্য নেটিজেনরা দাবি করছেন আমির তার নিজের ছবি বাঁচাতে এই রকম মন্তব্য করেছেন। অর্থাৎ আমিরের এই বক্তব্য নিজের ছবির প্রচারমূলক দৃষ্টান্ত চিহ্নিত করেছে।

এছাড়া বয়কটের পিছনে প্রতিবাদকারীরা আরো কারণ তুলে ধরেছে, আমির খানের পিকে (PK) ছবি নিয়ে দর্শকরা খুব ক্ষুব্দ হয়েছিল। যেখানে আমির খান ভগবান শিবকে নিয়ে ঠাট্টা করেছিলেন। এবং তার একটি পুরনো বক্তব্য, যেখানে তিনি বলেছিলেন শিবের মাথায় দুধ চড়ানো মানে শুধু অপচয় এর থেকে অনাথ শিশুদের দান করা অনেক ভালো। তার এই রকম কটুক্তি ছবিটির বয়কটকে তীব্র করেছে। এছাড়াও নিটেজেনরা বয়কটের পিছনে আরো একটি বিশেষ কারণ তুলে ধরেছে, তথ্য অনুসারে ‘লাল সিং চাড্ডা’ ছবির শ্যুটিং চলাকালীন আমির খান তুরস্কের প্রেসিডেন্টের সাথে দেখা করতে গিয়েছিলেন। তুরস্ক হলো সেই দেশ যে সব সময় ভারতের বিরোধিতা করে পাকিস্তানের পক্ষ নিয়েছে। তাছাড়া আমির খান কিছুদিন আগে আরো একটি বিবৃতি দিয়েছিলেন, যেখানে তিনি এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন তার স্ত্রী কিরণ রাও দেশে থাকতে ভয় পান। অবশ্য এই সব কারনের জন্যে তাকে অনেক ট্রোলের মুখে পড়তে হয়েছিল।

এছাড়া ‘লাল সিং চাড্ডা’ কে নিয়ে অমিরের পাশাপাশি করিনা কাপুরও বিতর্কে জড়িয়ে আছে। করিনা কাপুরের একটি পুরনো অভক্তি কর উক্তি, যেখানে তিনি বলেছিলেন মানুষ নিজেরাই বলিউড কিডসের ছবি দেখতে যায় পরে তারাই আবার স্বজনপ্রীতির জন্য কাঁদে। যদি মানুষ বলিউড কীটদের এতই ঘৃণা করে তাহলে তাদের ছবি দেখতে যাওয়া উচিত না। তার এইরকম কুরুচিকর উক্তিও ছবিটির বয়কট তীব্র করে তুলেছে। অবশ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ‘দ্যা কাশ্মীরি ফাইল’ ছবিটিতে আমিরের মন্তব্য তাকে অনেক ট্রোলের সম্মুখীন হতে হয়েছে।

 

Related Articles

Back to top button