ভারতের ৫ গ্ল্যামারাস মহিলা রাজনীতিবিদ, তাঁদের সৌন্দর্য বড় বড় অভিনেত্রীদেরও হার মানিয়ে দেয়

সৌন্দর্যটা সবারই চোখে লাগে সেটা কোন জিনিসই হোক বা কোন মানুষের। আমাদের দেশে বলিউড ইন্ডাস্ট্রির অভিনেত্রীদের সুন্দরী বলা হয়ে থাকে। কিন্তু বেশিরভাগ অভিনেত্রী মেকআপের মাধ্যমে সৌন্দর্য প্রকাশ করে থাকে। তবে আপনি কি জানেন, আমাদের দেশে এমন কিছু প্রভাবশালী মহিলা রয়েছেন, তাঁরা মেকআপ ছাড়াই খুব সুন্দরী।

নুসরাত জাহান- তিনি ২০১৯ সালে তৃণমূল কংগ্রেস হয়ে দাঁড়ান এবং বসিরহাটে তিনি প্রচুর ভোটে জয়ী হন। এখান থেকেই তাঁর রাজনৈতিক জীবন শুরু হয়। তিনি জন্মগ্রহণ করেছেন কলকাতাতে ১৯৯০ সালে, ৪ জানুয়ারি। তিনি ২০১! সালে ‘শত্রু’ সিনেমা দিয়ে তাঁর অভিনয় জীবন শুরু করেন।

দিব্যা স্পন্দন – তিনি দক্ষিণ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় অভিনেতা। তিনি জন্মগ্রহণ করেছিলেন ব্যাঙ্গালোরেতে ১৯৮৩ সালে ২৯ শে নভেম্বর। তিনি কন্নড় চলচ্চিত্র ছাড়া তামিল এবং তেলেগু ভাষাযতেও অভিনয় করেছেন। তিনি দেখতেও খুবই সুন্দর।

অলকা লাম্বা: তিনি মাত্র ১৯ বছর বয়সে কংগ্রেস ছাত্র ইউনিয়নে যোগ দিয়েছিলেন। তিনি দেখতেও খুব সুন্দর এবং লম্বা। তাঁর গায়ের রং উজ্জ্বল। তাঁর পার্সোনালিটি তাঁকে শক্তিশালী রাজনীতিবিদ হিসেবে জনপ্রিয়তা এনে দিয়েছে। তিনি ‘গো ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন’ এনজিও প্রতিষ্ঠা করেন।

আঙ্গুরলতা ডেকা: ভারতীয় জনতা পার্টির সুন্দরী রাজনীতিবিদ হলেন আঙ্গুরলতা। তিনি আসামের বাটদ্রোবা কেন্দ্র থেকে বিজেপির বিধায়ক হন ২০১৬ সালে। এছাড়াও তিনি একজন মডেল, অভিনেত্রী এবং পরিচালক। তিনি বাংলা এবং অসমীয়া ভাষায় চলচ্চিত্রে কাজ করে থাকেন।

ডিম্পল যাদব: উত্তরপ্রদেশে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদবের স্ত্রী হলেন ডিম্পল যাদব। তিনি খুবই ভদ্র প্রকৃতি এবং ইন্ডিয়ান কালচার মেনে তিনি সবসময় শাড়ি পড়ে থাকেন। তিনি দুবার সমাজবাদী পার্টির সংসদ হয়েছিলেন।

গুল পানাগ: তিনি ২০১৪ সালে রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। তিনি আম আদমি পার্টির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন ২০১৪ সালে। রাজনীতির পাশাপাশি তিনি একজন জনপ্রিয় বড় পর্দার অভিনেত্রী। তিনি ২০০৩ সালে বলিউড জগতে ‘ধূপ’ চলচ্চিত্রের মধ্যে দিয়ে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন।

 

 

Related Articles

Back to top button