মনে আছে রাতারাতি চোখ মেরে ভাইরাল হওয়া জাতীয় ক্রাশ প্রিয়া প্রকাশ কে, এখন এই ভাবে কাটাচ্ছেন দিন

সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social media)  প্রায় কোনো না কোনো ভিডিও/পোস্ট/ছবি ভাইরাল (Viral) হতে থাকে ও সেটি ট্রেন্ডিং হয়ে যায়। কিন্তু কিছুদিন বাদে যখন সেই ভিডিওর মানুষ বা সেই ছবি, পোস্ট পুরোনো হয়ে যায় তখন সেই ভিডিওতে থাকা মানুষগুলো বেঁচে রয়েছে না মরে গেছে কেউ খোঁজ রাখেনা। আজ আমরা আমাদের আর্টিকেলে এমন ২০১৮ সালের ভাইরাল (Viral) ও টেন্ডিং একটি ভিডিওর বিষয় আলোচনা করবো। আসুন জেনেনি এই বিষয় বিস্তারিত।

Priya prakash varrier

আপনার ২০১৮ সালের ভাইরাল হওয়া মালায়লাম ফিল্মের ক্লিপ যেখানে অভিনেত্রী প্রিয়া প্রকাশ বারিয়ার (Priya Prakash Varrier)-কে স্কুল স্টুডেন্ট হিসেবে দেখিয়েছে ও স্কুলের ক্লাসরুমে তার প্রেমিকের সাথে ইশারাতে চোখ মেরে ফ্লার্ট করতে দেখা গেছিল। এই ভিডিওটি দর্শক দ্বারা অনেক পছন্দ করা হয়েছিল এবং প্রিয়া প্রকাশ বারিয়ার (Priya Prakash Varrier)-কে ন্যাশনাল ক্রাশ হিসাবে ঘোষণা করেও দেওয়া হয়েছিল। কারণ এই ভিডিওতে প্রিয়াকে এতটাই সুন্দর দেখতে লাগছিল যে সবাই তার প্রেমে পরেগেছিল। সবাই সেই সময় প্রিয়ার নাম রেখেছিল ‘উইঙ্ক গার্ল’। এছাড়া প্রিয়া সেই সময় নিজের গান দিয়েও লোকেদের মুগ্ধ করেছিলেন এবং তিনি একজন ভালো অভিনেত্রী হওয়ার সাথে একজন ভালো নায়িকাও।

কিন্তু এই ভিডিও পুরোনো হয়ে যাওয়ায় তিনি যেন দর্শকদের মাঝে কোথাও হারিয়ে গেছেন। এখন প্রশ্ন হচ্ছে তিনি বর্তমানে কোথায় রয়েছেন এবং কী করছেন? তবে জানিয়ে দি ন্যাশনাল ক্রাশ প্রিয়া কিন্তু এখনও অভিনয় দুনিয়াতেই আছেন। ২০১৯ সালের পর ২০২১ সালে প্রিয়ার দুটি তেলেগু ছবি মুক্তি পায়। ‘চেক’ এবং ‘ইশক : নিট আর লাভ স্টোরি’ নামের দুটি ছবিতে তাকে দেখা গিয়েছিল। খুব শীঘ্রই বলিউডেও অভিষেক ঘটবে তার। ময়ঙ্ক প্রকাশ শ্রীবাস্তব পরিচালিত এবং প্রযোজিত সত্য ঘটনার উপর আধারিত ‘লাভ হ্যাকার্স’ নামের একটি হিন্দি ছবি দিয়ে প্রিয়া বলিউডে তার যাত্রা শুরু করবেন।

Priya prakash varrier

জানিয়ে দি যে ৪ বছর পূর্বে ফিল্মে শুধু চোখ মেরে ও সিনেমার প্রেমিককে ফ্লাইং কিশ ছুড়ে দেওয়ার ভিডিও দ্বারা ভাইরাল হয়েছিলেন তিনি। এই ফিল্মে তার বিপরীতে ছিলেন অভিনেতা আব্দুল রউফ। প্রিয়া ফিল্মে আব্দুল রউফকে কিশ করেও অনেকটা আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছিলেন। তবে খুব কম সংখ্যক লোক জানে যে এই ছবির জন্য তাকে আইনি ঝামেলাতেও জড়াতে হয়েছিল। মুসলিম ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ফৌজদারির মামলা হয়েছিল।

Priya prakash varrier

৪ বছর আগে যখন প্রিয়ার চোখ মারা ও ফ্লাইং কিশের ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় (social media)  হয়েছিল তখন খ্যাতির বিড়ম্বনাতেও বেশ ভুগতে হয়েছিল। কারণ সেইসময় অনেকে তাকে ট্রোল করেছিল। সেই সময় তার বয়স ছিল মাত্র ১৮। সেই সময় জানিয়েছে যে তাকে সবাই এতটাই হ্যারাস করছিল যে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে গেছিল। এত কম বয়সে সেই সময় বয়সে এত ট্রোল, এত বিদ্বেষ, এত মিম সামাল দেওয়ার মত ক্ষমতা তার ছিল না। ওই সময় তিনি পাশেও কাউকে পাননি। কেরিয়ারের শুরুতেই এমন একটি ধাক্কা খেয়ে নিজের উপরই সন্দেহ দেখা দিয়েছিল তার। কিন্তু পরবর্তীকালে তিনি ট্রোল, নিন্দা এসব সামাল দিতে শিখে নিয়েছেন। এখন তেলেগু এবং মালায়ালম ছবিতেই সব থেকে বেশি কাজ করছেন প্রিয়া।

Related Articles

Back to top button